ব্রেকিং নিউজ
Home - অপরাধ - মঠবাড়িয়ায় মুক্তিযোদ্ধার সন্তানকে সাজানো অস্ত্র মামলায় আসামী করে হয়রাণির অভিযোগ পুলিশের বিরুদ্ধে

মঠবাড়িয়ায় মুক্তিযোদ্ধার সন্তানকে সাজানো অস্ত্র মামলায় আসামী করে হয়রাণির অভিযোগ পুলিশের বিরুদ্ধে

মঠবাড়িয়া প্রতিনিধি :

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় গত সংসদ নির্বাচন চলাকালীন সময়ে থানা পুলিশের দায়ের করা একটি সাজানো অনস্ত্র উদ্ধার মামলায় মো. রেদোয়ান গোলদার নামে এক মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সন্তানকে আসামী করে হয়রাণির অভিযোগ উঠেছে পুলিশের বিরুদ্ধে।

আজ মঠবাড়িয়া মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবনে স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধারা ও ভ‚ক্তভোগি পরিবারের স্বজনরা এক সংবাদ সম্মেলনে এ অভিযোগ করেন।

সংবাদ সম্মেলনে সাবেক উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কমাÐার বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. বাচ্চু মিয়া আকন লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন। এসময় উপজেলার বীর মুক্তিযোদ্ধা ও তাদেও সন্তানরা উপস্থিত ছিলেন।

সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ করা হয়, মঠবাড়িয়া উপজেলার তুষখালী গ্রামের প্রয়াত বীর মুক্তিযোদ্ধা ও ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি আজিজুর রহমান গোলদার এর ছেলে ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক রেদোয়ান গোলদারকে বিনা অপরাধে প্রথমে আটক করে পুলিশ উদ্দেশ্যমূলক একটি সাজানো অস্ত্র উদ্ধার মামলায় আসামী করে। দ্বাদশ সংসদ নির্বাচন চলাকালীন সময়ে সাবেক সংসদ সদস্য ও স্বতন্দ্র প্রার্থীর ইন্ধনে প্রভাবিত হয়ে তৎকালীন থানার অফিসার ইনচার্জ মুক্তিযোদ্ধ্রা সন্তানকে অন্যায়ভাবে আসামী করে অস্ত্র উদ্ধার মামলায় গ্রেফতার করে। এ ঘটনায় স্থানীয় বীর মুক্তিযোদ্ধাদের মাঝে ক্ষুব্দ প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হলে মুক্তিযোদ্ধার প্রতিবাদ কর্মসূচির ডাক দেয়। পরে জেলা প্রশাসক ও ইউএনও মুক্তিযোদ্ধার পরিবার যাতে হরাণির শিকার না হয় সে মর্মে মুক্তিযোদ্ধাদেও আশ^াস দিলে প্রতিবাদ কর্মসূচি প্রত্যাহার করা হয়। কিন্ত পুলিশ তড়িঘরি সাজানো ওই অস্ত্র মামলা দায়েরের ১০ দিনের মাথায় মুক্তিযোদ্ধার সন্তানকে আসামী করে চার্জশীট দেয়। এদিকে মুক্তিযোদ্ধার সন্তান রেদোয়ান গোলদার গত ৮ নভেম্বর ২০২৩ তারিখ থেকে জেলহাজতে রয়েছে।
সংবাদ সম্মেলনে নির্বাচন চলাকালীন সময়ে মুক্তিযোদ্ধা পরিবারকে অন্যায়ভাবে জড়িয়ে পুলিশের এ সাজানো মামলার ন্যায় সঙ্গতভাবে অধিকতর তদন্ত ও মামলাটি প্রত্যাহারের দাবি জানানো হয়।

প্রয়াত বীর মুক্তিযোদ্ধা আজিজুর রহমান গোলদার এর স্ত্রী সুলতানা রহমান অভিযোগ করেন, প্রভাবশালীদের ইন্ধনে পুলিশ আমার ছেলের বিরুদ্ধে সাজানো অস্ত্র উদ্ধার মামলা দিয়ে গ্রেফতার করেছে। পুলিশের এই মামলা চক্রান্তমূলক । সঠিক তদন্ত হলে আসল রহস্য বের হবে। আমার ছেলে সমঊর্ণ নির্দোষ। আমরা প্রশাসনের কাছে ন্যায় বিচার প্রার্থনা করছি।

সংবাদ সম্মেলনে বীর মুক্তিযোদ্ধারা আরও অভিযোগ করেন নির্বাচনী প্রতিহিংসার জের ধরে তুষখালী ইউপি চেয়ারম্যান ও বীর মুক্তিযোদ্ধা শাহজাহান হাওলাদার এর বিরুদ্ধে পুলিশ পৃথক একটি মামলা দায়ের করে । মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের বিরুদ্ধে পুলিশের এ সাজানো মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানানো হয়। অন্যথায় স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধা ও তাদেও পরিবারের স্বজনরা কঠোর প্রতিবাদ কর্মসূচি হাতে নিবে।

 

Leave a Reply

x

Check Also

পিরোজপুরে বিএনপি’র কালো পতাকা মিছিল পুলিশী বাঁধায় পন্ড

পিরোজপুর প্রতিনিধি 🔴 নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতির প্রতিবাদে এবং দ্বাদশ জাতীয় সংসদ বাতিলের দাবিতে কেন্দ্রীয় ...