এপ্রি ১১, ২০১৯

আজকের মঠবাড়িয়া

সত্য প্রচারে সোচ্চার

মঠবাড়িয়ার পল্লীতে ১৮ বছর ধরে নলকূপ দিয়ে উঠছে গ্যাস

দেবদাস মজুমদার >>

পিরোজপুর মঠবাড়িয়ার হোতখালী গ্রামে দীর্ঘ ১৮ বছর ধরে গৃহবধূ রেনু পহলানের বাড়ির গভীর নলকূপের পাইপ দিয়ে গ্যাসের বুদবুদ বের হচ্ছে। এ ঘটনায় তিনি ভীতসন্ত্রস্ত। তবে তাঁর মতে, সংশ্লিষ্টরা অনুসন্ধান করে দেখলে গ্যাসক্ষেত্র পেতেও পারে।

সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়, সুপেয় পানির জন্য ১৮ বছর আগে গভীর নলকূপটি স্থাপনের উদ্যোগ নিয়েছিলেন রেনু। কিন্তু মাটির নিচে পানির পাইপ বসানোর সময় পাইপ ফেটে বুদবুদ বের হতে থাকে। এ সময় গ্যাসের অস্তিত্ব টের পেয়ে রেনু পাইপের মুখে আগুন জ্বালিয়ে পরীক্ষাও করেন। পরে তিনি গভীর নলকূপের গোড়ায় পাইপ লাগান। এ পাইপের মাধ্যমে বসতঘরে রান্নার চুলায় গ্যাস নেন রেনু। আড়াই বছরের মতো এ গ্যাস দিয়ে রান্না করেছেন তিনি। কিন্তু বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটতে পারে, খবর পেয়ে সরকার গ্যাসের অনুসন্ধান চালালে ভিটেমাটি হারাবে বলে তাঁকে ভয় দেখায় গ্রামবাসী। এ পরিস্থিতিতে চুলায় রান্নার কাজ বন্ধ করে দেন তিনি।

রেনু বলেন, ‘১৮ বছর আগে নলকূপ বসাতে গিয়ে এ গ্যাসের সন্ধান পাই। পরে আড়াই বছর নিয়মিত রান্নাবান্না করি। গ্রামের মানুষের ভয়ভীতিতে আগুন জ্বালানোর কাজ বন্ধ করি। এত বছর ধরে এখানে অনবরত গ্যাস বের হচ্ছে—পরীক্ষা করলে মানুষের কাজে লাগতে পারে। সরকার যদি পরীক্ষা করে তাহলে দেশের কাজে লাগতেও পারে।’

গুলিসাখালী ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) সদস্য মো. ফারুক ফরাজি বলেন, ‘১৮ বছর ধরেই গ্যাস বের হচ্ছে। তবে অনুসন্ধান করা হয়নি।’

অন্যদিকে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) জি এম সরফরাজ বলেন, ‘গ্যাস উদিগরণেন বিষয়টি জানা নেই। তবে বিষয়টি যেহেতু জনগুরুত্বপূর্ণ—খোঁজখবর নিয়ে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে জানানোর উদ্যোগ নেওয়া হবে।’

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com