মঠবাড়িয়া প্রতিনিধি >>

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় ছোট ভাইয়ের হামলায় টেটাবিদ্ধ হয়ে গুরুতর আহত হয়েছেন বড় ভাই নূরু হাওলাদার (৪০)। গতকাল শনিবার (২৯ সেপ্টেম্বর) রাতে উপজেলার পূ্র্ব গুলিশাখালী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

আহত নূরু হাওলাদার পূর্ব গুলিশাখালী গ্রামের ছত্তার হাওলাদারের ছেলে।

পুলিশ টেটাবিদ্ধ নূরুকে উদ্ধার করে প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। সেখানে তার অবস্থার অবনতি হলে তাকে বরিশাল শের এ বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।

হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, বড় ভাই নূরু ও ছোট ভাই সাদ্দাম হাওলাদারের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ। এর জের ধরে শনিবার বিকেলে গাছ থেকে সুপারি সংগ্রহ নিয়ে বোন জামাই পাঞ্জু মিয়া ও ছোট ভাই সাদ্দামের সঙ্গে বাকবিতণ্ডা হয় নূরুর। পরে বড় ভাই শাহজাহান হাওলাদার বাড়ি এসে বিষয়টি মীমাংসা করে দেন।

রাত ৮টার দিকে দ্বিতীয় দফায় ঝগড়া শুরু হলে নূরু বড় ভাইকে ফের নালিশ জানাতে বাড়ি থেকে বের হন। এতে ছোট ভাই সাদ্দাম ও তার বোন জামাই পাঞ্জু ক্ষিপ্ত হয়ে নূরুকে টেটাবিদ্ধ করে পুকুরে ফেলে রেখে পালিয়ে যান। নূরুর চিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে এসে প্রতিবেশী ফারুক নামের এক ব্যক্তিকে কুপিয়ে আহত করে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে নূরুকে টেটাবিদ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।

মঠবাড়িয়া থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) নূর হোসেন বলেন, ‘নূরুর অবস্থা আশঙ্কাজনক। এ ঘটনায় লিখিত অভিযোগের পর আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

SIMILAR ARTICLES

মন্তব্য নেই

মন্তব্য করুন