আজকের মঠবাড়িয়া অনলাইন ডেস্ক >

বার্ধক্য মানবজীবনের এক অসহায়ত্বের কাল। প্রবীণরা আমাদেরই স্বজন , তাঁদের  সুখ শান্তি এবং মর্যাদার সঙ্গে বাঁচা প্রয়োজন। তাঁদের জীবনমান উন্নয়নে গোটা সমাজ ও রাষ্ট্রকে দায়িত্বশীল হওয়া জরুরী।

জাতিসংঘ বার্ধক্যকে মানবজীবনের প্রধানতম চ্যালেঞ্জ হিসেবে উল্লেখ করে এ সমস্যা সম্পর্কে ব্যাপক গণসচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে ১৯৯১ সাল থেকে প্রতি বছর ১ অক্টোবর বিশ্বব্যাপী আন্তর্জাতিক প্রবীণ দিবস পালন করে আসছে।  জাতিসংঘ সংশ্লিষ্ট সকল মহলকে উদ্যোগী হওয়ার আহ্বান জানিয়েছে। জাতিসংঘ এশিয়া-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের জন্য ৬০ বছর ও তদূর্ধ্ব এবং উন্নত অঞ্চলের জন্য ৬৫ বছর ও তদূর্ধ্ব বয়সীদের প্রবীণ হিসেবে চিহ্নিত করে প্রবীণের জীবনমান ও নিরাপত্তা বিষয়ে নানা প্রচেষ্টা চালিয়ে আসছে।

মানুষের সচেতনতা, পুষ্টি ও স্বাস্থ্য সেবার উন্নয়ন মৃত্যু হার যেমন হ্রাস করেছে তেমনি মানুষের গড় আয়ু বেড়েছে। ফলে, বিশ্ব সমাজে বয়স্কদের সংখ্যা ক্রমশ বৃদ্ধি পাচ্ছে। জাতীয় পর্যায়ে বাংলাদেশের সবচেয়ে উদ্বেগজনক এবং বিস্ফোরণোন্মুখ অবস্থা হলো জনসংখ্যার বার্ধক্য। অথচ বহুকাল ধরে আমরা এ বিষয়ে খুবই অসচেতন, উদাসীন এবং নিষ্ক্রিয়।

আজ ১ অক্টোবর আন্তর্জাতিক প্রবীণ দিবস। এ উপলক্ষে সমাজ কল্যাণ মন্ত্রণালয়সহ বিভিন্ন সংগঠন নানা কর্মসূচি গ্রহণ করেছে। আন্তর্জাতিক প্রবীণ দিবসের এ বছরের প্রতিপাদ্য হচ্ছে ‘বয়স বৈষম্য দূর করুন’।

১৯৯০ সালে জাতিসংঘ প্রতিবছর ১ অক্টোবরকে আন্তর্জাতিক দিবস পালনের সিদ্ধান্ত নেয়।

দিবসটি উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাণী দিয়েছেন। রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ বাণীতে বলেছেন, “প্রবীণরা যাতে সুখ-শান্তি এবং মর্যাদার সঙ্গে বাঁচতে পারে সে লক্ষ্যে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া জরুরি।” প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাঁর বাণীতে বলেছেন, “প্রবীণদের জীবন সায়াহ্নে যথাযথভাবে দেখাশোনা করা এবং তাদের কল্যাণের লক্ষ্যে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া রাষ্ট্র, পরিবার তথা সমাজের অবশ্যই কর্তব্য।”

দিবসটি উপলক্ষে সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়, বাংলাদেশ প্রবীণ হিতৈষী সংঘ, জরাবিজ্ঞান প্রতিষ্ঠানসহ বিভিন্ন সংগঠন নানা কর্মসূচি হাতে নিয়েছে। সমাজ কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সমাজসেবা অধিদপ্তরের পক্ষ থেকেিআজ দেশজুড়ে নানা কর্মসূচি পালিত হবে।

এ উপলক্ষে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের বটতলা থেকে একটি শোভাযাত্রা বের করা হবে। এরপর সকাল ১০টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ডি ব্লকের ১৭ তলায় ইন্টারনাল মেডিসিন বিভাগের ক্লাসরুমে একটি বৈজ্ঞানিক সম্মেলনের আয়োজন করা হয়েছে। জাতীয় প্রতিবন্ধী ফাউন্ডেশন দিবসটি উপলক্ষে মিরপুর ১৪ অবস্থিত ফাউন্ডেশনের কার্যালয়ে আলোচনা সভার আযোজন করেছে।

এছাড়া সারাদেশে নানা উন্নয়ন সংগঠন র‌্যালী,আলোচনাসভাসহ প্রবীণদের অংশগ্রহণে নানা কর্মসূচি বাস্তবায়ন করবে।

আসুন আমরা প্রবীণদের প্রতি যত্নবান হই। প্রবীণদের প্রতি সকল বৈষম্য দুর করি।

 

মন্তব্য নেই

মন্তব্য করুন