মঠবাড়িয়া প্রতিনিধি > তুচ্ছ ঘটনার জের ধরে পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ার উত্তর শাখারীকাঠী গ্রামে হরিগুরু পাগল চাঁদ সেবাআশ্রমের সেবাইত ক্ষিতীশ চন্দ্র মিস্ত্রী ও তার পরিবারের উপর হামলা চালিয়েছে প্রতিপক্ষরা। শনিবার বিকালে এ হামলার সময় আশ্রমের সেবাইত ক্ষিতীশ চন্দ্র মিস্ত্রী (৪৮), ও তাঁর বৃদ্ধা মা বিভা রানী মিস্ত্রী (৮০) এবং সেবাইতের দু’স্ত্রী রেনু বালা মিস্ত্রী (৪২) ও নমিতা রানী মিস্ত্রী (৩৫) এবং সঞ্জয় মিস্ত্রী (৩০)। আহতদের শনিবার রাতে মঠবাড়িয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। এ হামলার সময় ওই আশ্রমের সেবাইতের পরিবারের নারীরা লাঞ্ছনার শিকার হয় বলে ভূক্তভোগি পরিবার অভিযোগ করেন।
এ ঘটনায় সেবাইত ক্ষিতীশ চন্দ্র বাদী হয়ে প্রতিপক্ষ পঙ্কজ (৫০) ও তার পুত্র পবিত্র (২২)সহ ৫ জনকে আসামী করে শনিবার রাতে মঠবাড়িয়া থানায় একটি মামলা করেন।
থানা সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার উত্তর শাখারীকাঠী গ্রামে হরিগুরু পাগল চাঁদ সেবাআশ্রমের সেবাইত ক্ষিতীশ চন্দ্রের স্ােথ প্রতিপক্ষ প্রতিবেশী পঙ্কজ হাওলাদারের সাথে জমিজমা নিয়ে দীর্ঘ দিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল। এ বিরোধের জের ধরে শনিবার বিকালে প্রতিপক্ষ পঙ্কজ ও তার ছেলে ক্ষিতীশের বৃদ্ধ পিতা কুমুদ চন্দ্র মিস্ত্রীকে গাল মন্দ করে। এর প্রতিবাদ করলে প্রতিপক্ষরা লাঠিসোটা নিয়ে সেবাইত পরিবারের হামলা চালায়। এ সময় হামলাকারীরা লক্ষাধিক টাকার ফলদ গাছ ও মাছের ঘেরের ক্ষতি সাধন করে বলে মামলায় অভিযোগ আনা হয়।
অভিযুক্তরা ঘটনার পর থেকে পলাতক থাকায় তাদের বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

এ ব্যাপারে মঠবাড়িয়া থানার অফিসার ইনচার্জ খন্দকার মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, ভূক্তভোগি আশ্রমের সেবাইত বাদি হয়ে অভিযুক্ত পাঁচ জনকে আসামী করে থানায় মামলা দায়ের করেছেন। আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

SIMILAR ARTICLES

মন্তব্য নেই

মন্তব্য করুন