পিরোজপুর প্রতিনিধি <>
পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় আপন ভাইয়ের কিশোরী মেয়েকে ধষণের পর হত্যার অপরাধে নূর মোহাম্মদ(৪০) নামে এক চাচাকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে পিরোজপুরের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল আদালতের বিচারক। আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে পিরোজপুরের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. মিজানুর রহমান এ চাঞ্চল্যকর মামলার রায় ঘোষণা করেন । দ-প্রাপ্ত আসামী মঠবাড়িয়া উপজেলার নলি তুলাতলী গ্রামের আব্দুর রশিদের ছেলে নুর মোহাম্মদ কে মৃত্যুদন্ডের পাশাপাশি আরও ১ লাখ টাকা জরিমানার আদেশ দেয় আদালত।
মামলার সূত্রে জানা যায়, ২০১০ সালের ২১ মার্চ দণ্ডিত আসামী নূর মোহাম্মদ তার আপন ভাইয়ের মেয়ে নবম শ্রেণীর ছাত্রী আমেনাকে (১৪) বাঁশ বাগানে ডেকে নিয়ে যায়। এরপর পাষ- চাচা নূর মেয়েটিকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। ঘটনা ধামাচাপা দিতে ধর্ষক নূর মেয়েটিকে হত্যার করে বাড়ির পাশের একটি খালে ফেলে দেয়। পরে স্থানীয়দের মাধ্যমে পুলিশ খবর পেয়ে খাল থেকে লাশ উদ্ধার করে।
পরে নিহত ওই কিশোরীর মা ফাতেমা বেগম বাদী হয়ে মঠবাড়িয়া থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করে। পুলিশ নুর মোহাম্মদকে গ্রেফতার করে এবং পরবর্তীতে সে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তি মূলক জবানবন্দি দেয়।
মামলাটি বিচারের জন্য নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে এলে বিচারক ১০ জন সাক্ষীর সাক্ষ্য গ্রহণ করেন এবং অভিযোগ পত্র সহ অন্যান্য কাগজ পত্র পর্যালোচনা করে অপরাধীর অপরাধ সন্দেহাতিত ভাবে প্রমাণিত হওয়ায় এ মৃত্যুদন্ডের ও অর্থ দন্ডের আদেশ দেন।
সরকার পক্ষে নারী ও শিশু দমন নির্যাতন ট্রাইবুনালের পিপি আব্দুর রাজ্জাক খান বাদশা ও আসামী পক্ষে এ্যাডভোকেট কানাই লাল বিশ্বাস এ মামলা পরিচালনা করেন। রায় ঘোষণার সময় আসামী আদালতে উপস্থি ছিলেন।

SIMILAR ARTICLES

মন্তব্য নেই

মন্তব্য করুন