ভাণ্ডারিয়া প্রতিনিধি >>

পিরোজপুরের ভাণ্ডারিয়ায় হনুফা আক্তার (১৪) নামে এক স্কুল ছাত্রীকে সেফ হোমে পাঠিয়েছে পুলিশ। প্রেমঘটিত কারনে ওই স্কুল ছাত্রী আত্মহত্যার হুমকী দিলে ভা-ারিয়া থানা পুলিশ তাকে পিরোজপুর সেফ হোমে পাঠায়। হনুফা ভা-ারিয়া উপজেলার খাতুননেসা বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণীতে লেখাপড়া করছে। সে উপজেলার চরখালী গ্রামের মৎস্য ব্যবসায়ী কাদের হাওলাদার এর মেয়ে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, স্কুল ছাত্রী হনুফা আক্তার উপজেলার চরখালী গ্রামের মোস্তফা জোমাদ্দার এর ছেলে মো. রনি জোমাদ্দার (২২) এর সঙ্গে দীর্ঘদিনের প্রেমঘটিত কারনে গত২৬ ডিসেম্বর সন্ধ্যায় সে পালিয়ে যায়। এ ঘটনার পর মেয়েটির বাবা ক্ষিপ্ত হয়ে রনির বিরুদ্ধে অপহরণের অভিযোগ এনে ভা-ারিয়া থানায় সোমবার একটি অভিযোগ দাখিল করেন। ভা-ারিয়া উপজেলার চরখালী গোল চত্বর থেকে পুলিশ স্থানীয় ইউপি সদস্য মো. মনির হোসেন এর সহযোগিতায় মেয়েটিকে উদ্ধার করে ।
মেয়েটির বাবা কাদের হাওলাদার জানান, তার মেয়ের বয়স মাত্র ১৪ বছর । বখাটে সুমন তাকে ফুসলিয়ে নিয়ে যায়।
এ বিষয়ে ভা-ারিয়া থানার অফিসার ইন চার্জ মো. শাহাবুদ্দিন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, ওই স্কুল ছাত্রীকে উদ্ধার করে তার বাবা-মায়ের কাছে হস্তান্তর করতে চাইলে সে বাবা মায়ের কাছে যেতে অস্বৃকৃতি জানায়। এমকি সে আত্মহত্যার হুমি দেয়। পওে তাবে পিরোজপুর সেফ হোমে পাঠানো হয়।

SIMILAR ARTICLES

মন্তব্য নেই

মন্তব্য করুন