মঠবাড়িয়া প্রতিনিধি >>

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় এক গৃহবধূ ও তার আপন ভাই এর বিরুদ্ধে ষাটোর্ধ এক স্বামী আদালতে যৌতুক মামলা দায়ের করেছেন।
হেমায়েত খান (৬৫) নামের ওই ব্যাক্তি দ্বিতীয় স্ত্রীর বিরুদ্ধে তিন লাখ টাকা যৌতুক দাবির অভিযোগ তুলে মামলা করে এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি করেছেন। উপজেলার উত্তর মিঠাখালী গ্রামের মৃত. জয়নাল আবেদীনের ছেলে হেমায়েত খান তাঁর দ্বিতীয় স্ত্রী মমতাজ বেগম (৪৫) ও তাঁর আপন শ্যালক আবদুল হাই (৪০) এর বিরুদ্ধে বৃহস্পতিবার মঠবাড়িয়া সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে এ এ যৌতুক মামলাটি দায়ের করেন ।

মামলা সূত্রে জানাগেছে, হেমায়েত খান এর প্রথম স্ত্রী মারা যাওয়ার পর গত তিন বছর পূর্বে উপজেলার বড় হারজী গ্রামের দলীল উদ্দিন খানের মেয়ে মমতাজ বেগমকে তিনি দ্বিতীয় বিয়ে করেন। কিছুদিন যেতে না যেতেই স্ত্রী মমতাজ বেগম স্বামী হেমায়েতের কাছে নগদ ৩ লাখ টাকা বা ৫ কাঠা জমি যৌতুক হিসেবে লিখে দেওয়া জন্য চাপ সৃষ্টি করে। বৃদ্ধ হেমায়েত স্ত্রীর দাবিকৃত নগদ টাকা বা জমি দিতে অপারগতা প্রকাশ করেন।  এর মধ্যে স্বামী হেমায়েত চিকিৎসার জন্য খুলনা যাওয়ার সুযোগে গত ১০ জুলাই মমতাজ ও তাঁর ভাই আবদুল হাইয়ের সহযোগিতার ৮০ হাজার টাকার মালামাল নিয়ে বাপের বাড়ি পালিয়ে যায় মমতাজ। এ নিয়ে এলাকায় কয়েকদফা সালিশ বৈঠক হলেও কোন সুরাহা হয়নি।  এক পর্য়ায় বৃহস্পতিবার ওই বৃদ্ধ স্ত্রী ও শ্যালকের বিরুদ্ধে  আদালতে যৌতুক মামলা দায়ের করেন। আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে বিজ্ঞ ম্যাজিস্ট্রেট  মঠবাড়িয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসির্)কে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেন।

এ বিষয়ে মঠবাড়িয়া থানার অফিসার ইনচার্জ গোলাম ছরোয়ার জানান, আদালতের আদেশ এখনও হাতে পাইনি। পেলেই অভিযোগ তদন্ত করে আদালতে প্রতিবেদন দেয়া হবে।

 

SIMILAR ARTICLES

মন্তব্য নেই

মন্তব্য করুন