ব্রেকিং নিউজ
Home - অপরাধ - মঠবাড়িয়ার ছাত্রলীগকর্মী ক্লিনটন হত্যা মামলার আসামী ছাত্রলীগের কমিটিতে ! নিহতর পরিবারের বিচার দাবি

মঠবাড়িয়ার ছাত্রলীগকর্মী ক্লিনটন হত্যা মামলার আসামী ছাত্রলীগের কমিটিতে ! নিহতর পরিবারের বিচার দাবি

মঠবাড়িয়া প্রতিনিধি

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ার ছাত্রলীগ কর্মী ক্লিনটন মজুমদার টিটু হত্যা মামলার চার্জশীটভূক্ত আসামীকে ছাত্রলীগ বরগুনা জেলা কমিটিতে অন্তভূক্ত করার অভিযোগ উঠেছে । সদ্য ঘোষিত বরগুনা জেলা ছাত্রলীগের কমিটিতে এ চঞ্চল্যকর হত্যা মামলার চার্জশীটভুক্ত আসামী আবদুল্লা আল মারজা কে ৪ নম্বর সাংগঠনিক সম্পাদক পদ দেওয়া হয়েছে। সে ১০ বছর আগে মঠবাড়িয়ায় সংগঠিত ছাত্রলীগ কর্মী িিক্লনটন হত্যা মামলার চার্জশীট ভূক্ত আসামী। এ নিয়ে জনমনে খ্ষোভ সৃষ্টি হয়েছে।
এদিকে গত ১০ বছরে নিহত ক্লিনটনের পরিবার ন্যায় বিচার খেকে বঞ্চিত হয়ে হত্যাকারীদের ফাঁসির দাবীতে সংবাদ সম্মেলন করেছে। আজ বুধবার দুপুরে মঠবাড়িয়া প্রেসক্লাবের সভা কক্ষে নিহতের পিতা উপজেলা উত্তর মিঠাখালী গ্রামের অরূপ মজুমদার ও তার মা দ্বিপালী রানী মজুমদার সংবাদ সম্মেলন কওে হত্যাকারী মারজান সহ অভিযুক্ত সকল আসামীর বিচার তাবি করেন।
লিখিত বক্তব্যে নিহত ক্লিনটনের বাবা ও মা বলেন, ২০১২ সালের ৮মে সন্ধায় কলেজ ছাত্র ক্লিনটন মজুমদার ওরফে টিটুকে মঠবাড়িয়া পৌর শহরের ২নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা ও পার্শবর্তী পাথরঘাটা উপজেলার নাচনাপাড়া মানিকখালী গ্রামের হায়দার মিয়ার পুত্র আবদুল্লা আল মারজান পূর্ব শত্রুতার জের ধরে অপহরণ করে। অপরহণ শেষে মারজানের নেতৃত্বে ৮/১০জনের একটি সন্ত্রাসী দল ক্লিনটনকে হত্যা করে খালে ফেলে দেয়। ঘটনার দুইদিন পর উপজেলার কালীরহাট নামক স্থানের পশ্চিম পাশের্^ বড়মছুয়া খাল হতে কলেজ ছাত্র ক্লিনটন মজুমদার ওরফে টিটুর গলিত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। এঘটনায় নিহতের পিতা অরূপ মজুমদার বাদী হয়ে ওই বছর ১০মে ৭জনকে আসামী করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। পুলিশ দীর্ঘ তিন মাস তদন্ত শেষে এজাহার নামীয় একজনকে বাদ দিয়ে ও নতুন করে আরও ২জনকে অন্তভুক্ত করে মারজানসহ ৮জনের বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন (যার অভিযোগপত্র নং ৩১৪ তারিখ ১৩/৮/২০১২) বর্তমানে এই মামলাটি পিরোজপুর দায়রা জজ আদালতে বিচারাধিন।
লিখিত বক্তব্যে তারা আরও বলেন, সাবেক ছাত্রদল নেতা ও ইয়াবা ব্যবসায়ী আবদুল্লা আল মারজান ওরফে বাবুসহ কতক আসমী বঙ্গবন্ধুর হাতে গড়া ঐতিহ্যবাহী ছাত্র সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের বিভিন্ন কমিটিতে সুকৌশলে ডুকে আমাদের হুমকি প্রদর্শন করছে। আমাদের পরিবার এখন নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি। তিনি মারজানকে জেলা ছাত্রলীগের পদ থেকে অব্যহতি দেয়াসহ হত্যাকারিদের ফাঁসির দাবী জানান।

এ ব্যাপারে বরগুনা জেলা ছাত্রলীগের সদ্য ঘোষিত কমিটির সভাপতি মো. রেজাউল করিম রেজা বলেন, মারজান যে হত্যা মামলার চার্জশীটভুক্ত আসামী তা আমার জানা নেই। বিষয়টি আমি জেনেছি এবং সংগঠনিক ব্যবস্থা নিতে কেন্দ্রীয় কমিটিকে মৌখিকভাবে অবহিত করেছি। বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুস্পমাল্য অর্পন করে আজ বুধবার দায়িত্ব গ্রহণ করি। তিনি আরও বলেন, মারজান কাকচিরা ইউনিয়ন ছাত্রলীগ কমিটির সহ-সভাপতি ছিলেন। সদ্য বিদায়ী কমিটির সভাপতি ও সম্পাদক ওই কমিটিকে অনুমোদন দিয়েছিলেন।

Leave a Reply

x

Check Also

পিরোজপুর জেলার শ্রেষ্ঠ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান মঠবাড়িয়ার কে.এম লতীফ ইনস্টিটিউশন

শিক্ষা প্রতিবেদক 🔴🟢 জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহ ২০২২ উপলক্ষে জেলা পর্যায় পিরোজপুর জেলা শ্রেষ্ঠ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ...