মার্চ ২৮, ২০২০

আজকের মঠবাড়িয়া

সত্য প্রচারে সোচ্চার

২৬ মার্চ আমাদের স্বাধীনতা দিবস

ছবি. দেব্দাস মজুমদার

নুর হোসাইন মোল্লা

১৯৭১ সালের ২৫ মার্চ মধ্য রাতের পূর্বে পাকিস্তান সেনাবাহিনী গণহত্যা ( অপারেশন সার্চলাইট) শুরু করলে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মধ্য রাতের পর ১২-২০ মিনিটে বাংলাদেশের স্বাধীনতা ঘোষণা করেন। হানাদার পাকিস্তান সেনাবাহিনী দালালদের সহযোগিতায় ১৯৭১ সালের মধ্য ডিসেম্বর পর্যন্ত ব্যাপক গণহত্যা, নারী ধর্ষণ, ঘরবাড়িতে অগ্নিসংযোগ এবং সেতু ও কালভার্ট ধ্বংস করে ইতিহাসের জঘন্যতম অপরাধ করেছে। তাদের বর্বরতা ও নিষ্ঠুরতা মানব সভ্যতার ইতিহাসে দ্বিতীয় ঘটনা। ভিয়েতনামের মুক্তিযুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের সেনাবাহিনী যে গণহত্যা করেছে তার মধ্যে মাইলাম গ্রামের হত্যাকান্ড বিশ্ববাসীকে অবাক করেছিল। কিন্তু বাংলাদেশে অসংখ্য মাইলামের মত হত্যাকান্ড বিশ্ববাসীর নজরে আসেনি। বাংলাদেশের এ নিষঠুর হত্যাকান্ড সম্পর্কে এ্যামনেষ্টি ইন্টান্যাশনাল তাদের “Political Killings by Government” বইয়ে মন্তব্য করেছেন ” They do not do anhthing and nothing. So we realized that The Army is a School of Murderer.” সুখী,সমৃদ্ধ ও গণতান্ত্রিক এক সোনার বাংলা প্রতিষ্ঠার জন্যে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নির্দেশে আমরা মুক্তিযুদ্ধ করেছিলাম। কিন্ত দুঃখজনক হলেও সত্য যে, আমাদের সে স্বপ্ন আজও বাস্তবায়ন হয়নি। দুঃখ, দারিদ্র্য, হতাশা,বঞ্চনা,সুদ,ঘুষ,দুর্নীতি, মাদক, সন্ত্রাস ইত্যাদি দেশের মানুষকে কুরে কুরে খাচ্ছে। রুগ্ন রাজনৈতিক অবস্হা টেকসই উন্নয়ন ব্যাহত করছে। লাখ লাখ
যুবক আজ বেকার। শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সন্ত্রাসের শিকার।
দেশে ঘুষ,দুর্নীতি, খুন,নারী ধর্ষণ, অপহরণ, ছিনতাই, চাঁদাবাজি, খাদ্যে সীমাহীন ভেজাল, সরকারী জমি দখল, শিক্ষার মান অবনতি , নিয়োগ বাণিজ্য, জাল- জালিয়াতি, যৌন হয়রানি, ইভটিজিং, হানাহানি ইত্যাদি অপরাধমূলক কাজ ক্রমশ বেড়েই চলছে।
স্বাধীনতার পর ৪৯ বছর অতিবাহিত হতে চলছে। দেশে সুশাসনের অভাব প্রকট।আমরা যদি সুশাসন ও প্রকৃত গণতান্ত্রিক শাসন ব্যবস্হা প্রতিষ্ঠিত করতে না পারি,দেশের টেকসই উন্নয়ন করতে না পারি, শিক্ষার মান উন্নয়ন করতে না পারি, সন্ত্রাস, খুন,হানাহানি, নারীর প্রতি সহিংসতা, খাদ্যে ভেজাল, সুদ,ঘুষ,দুর্নীতি, মাদক সেবন,চাঁদাবাজি, যৌন হয়রানি, নিয়োগ বাণিজ্য, জাল- জালিয়াতি ইত্যাদি বন্ধ করতে না পারি, তাহলে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সহ এিশ লাখ শহীদের রক্তের সাথে বেঈমানী করা হবে। আসুন, আমরা সবাই মিলে সুখী – সমৃদ্ধ সোনার বাংলা গঠন করি।আল্লাহ হাফিজ।