ব্রেকিং নিউজ
Home - মঠবাড়িয়া - অনুপ্রেরণার গল্প “বই পড়া তার চলছেই”

অনুপ্রেরণার গল্প “বই পড়া তার চলছেই”


ছেলের বই পড়ার আগ্রহ দেখে সুযোগটি কাজে লাগাচ্ছি – সুযোগ নেয়ার উদ্দেশ্য হলো তাকে ডিভাইসেস ( মোবাইল ফোনস, আইপ্যাডস, ল্যাপটপস ) থেকে দূরে এবং নিরাপদে রাখা |

আমার মনে হয় শিশুদেরকে ডিভাইসেস ব্যবহারে নিয়ন্ত্রণে রাখাটা বাবা-মা’দের এ মুহূর্তের গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব |

আমার ছেলে ডিভাইসেসও এনজয় করে এবং আমার মোবাইল ফোনটিতে গেম খেলতে বেশি স্বাচ্ছন্দ বোধ করে; তবে তাকে সময় বেঁধে দেয়া হয় | Year-1 থেকে ছেলেকে বই ( পাঠ্য বইয়ের বাহিরে ) কিনে দিচ্ছি | তাকে বলে দিয়েছি; পছন্দের যত বই সে পড়তে চাইবে, সব বই আমি কিনে দেবো | বই পড়া তার চলছে |

‘WHSmith’এর আমি একজন নিয়মিত বইয়ের কাস্টমার |
এছাড়াও নিউহ্যাম বরো’র লাইব্রেরীর একজন এনলিস্টেড পাঠক আমার ছেলে, ইনফ্যাক্ট আমরা স্বপরিবারেই এনলিস্টেড | লাইব্রেরী থেকে বই সংগ্রহ করে পড়া শেষে আবার সঠিক সময়ে ফেরত দেয়ার তদারকি তার মা’ই করে থাকেন | বই পড়ার ক্ষেত্রে গ্রীন-স্ট্রিট লাইব্রেরী থেকে জায়িম ইতোমধ্যে কয়েকবার পুরস্কৃত হয়েছে | তার মা ছেলের পঠিত সকল বইয়ের লিস্ট নিয়মিত সংরক্ষণ করেন |

‘Diary of Wimpy Kid’ সিরিজের ১৫ টি, ‘Worst Witch’ সিরিজের ৬টি, ‘Harry Potter’ সিরিজের ৩টি, ‘Tom Gates’ সিরিজের ৪টি, ‘ক্যাপ্টেন আন্ডারপ্যান্টস’ সিরিজের ২টি এবং ‘হেড কিড’র ২টি বই তার পড়া শেষ | বরো’র লাইব্রেরী থেকে সংগৃহীত ৭৫টি বই এবং স্কুল থেকে সংগৃহীত ১১৫টি বই সে পড়েছে; সব মিলিয়ে আজ অব্দি ২৩০টির বেশি বই (পাঠ্য বই’র বাহিরে) জায়িমের পড়া হয়েছে |

সে তার বন্ধুদেরকেও বই পড়তে উৎসাহ দিতে আনন্দ বোধ করে |

জায়িম স্কুল থেকে ২০২০ সালের অক্টোবরে ‘ফ্রি-রিডার’ খেতাব অর্জন করেছে, যাতে সে স্কুলে তার পছন্দের যে কোন বই পড়তে পারে।

বই পড়া তার চলছেই |

Zaeem Hussain – Year 4, Shaftesbury Primary School, London.
************************
[Get your children away from the devices]

লেখকঃ জিয়াউল ইসলাম, লন্ডন।

Leave a Reply

x

Check Also

মঠবাড়িয়ায় ৫ ফুট লম্বা অজগর সাপ উদ্ধার; সুন্দর বনে অবমুক্ত

মঠবাড়িয়া প্রতিনিধিঃ পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় সোমবার রাতে ৫ ফুট লম্বা একটি অজগর সাপ উদ্ধার করেছে মঠবাড়িয়া ...