ব্রেকিং নিউজ
Home - জাতীয় - মঠবাড়িয়ার তরুণ সজীব এর হাতেখড়ি সংগঠনের জয় বাংলা ইয়ুথ অ্যাওয়ার্ড অর্জন

মঠবাড়িয়ার তরুণ সজীব এর হাতেখড়ি সংগঠনের জয় বাংলা ইয়ুথ অ্যাওয়ার্ড অর্জন


দেবদাস মজুমদার :পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ার তরুণ সুমন চন্দ্র মিস্ত্রী সজীব পেলেন জয় বাংলা ইয়ুথ অ্যাওয়ার্ড। দেশ ও সমাজের উন্নয়নের জন্য কাজ করে যাওয়া তরুণদের ৩০ সংগঠনকে জয় বাংলা ইয়ুথ অ্যাওয়ার্ড প্রদান করা হয়। সজীব এর গড়ে তোলা সংগঠন হাতেখড়ি ফাউন্ডেশন এবার এ কৃতিত্ব অর্জণ করে। গত ১৭ নভেম্বর ইয়াং বাংলা আয়োজিত ভার্চুয়াল অনুষ্ঠানে ৩০ সংগঠনকে বিজয়ী হিসেবে ঘোষণা করেন প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়।
সজীব মঠবাড়িয়া উপজেলার দক্ষিণ মিঠাখালী গ্রামের দীনেশ চন্দ্র মিস্ত্রী ও দুলালী রানীর সন্তান।
জানাগেছে, ২০১৮ সালের ১৭ মার্চ সজীব আমরা হাতেখঁড়ি ফাউন্ডেশন গড়ে তোলেন। সংগঠনটি দক্ষিণ উপক‚লে প্রত্যন্ত অঞ্চলের জেলে পরিবারে শিশুদের নিয়ে কাজ শুরু করে। জেলে শিশুদের জীবনমান উন্নয়ন। তাদের মৌলিক অধিকার ও নিজস্ব সংস্কৃতি রক্ষা। তাদেরকে বিদ্যালয় মুখীকরণ, বিনামূল্যে শিক্ষাদান । তাদেরকে তথ্য প্রযুক্তিতে দক্ষ করার পাশাপাশি অন্যান্য জনগোষ্ঠীদের সাথে তাদের বৈষম্য দূরীকরণে কাজ করি।
এছাড়াও বাল্যবিবাহ রোধ, ইভটিজিং প্রতিরোধে সচেতনতামূলক প্রচারণা, বিনামূল্যে রক্তদান সহ বিভিন্ন সামাজিক উদ্যোগমূলক কাজ করে যাচ্ছে। এসব সামাজিক উন্নয়নমূলক কাজের স্বীকৃতি স্বরুপ দেশের তরুণদের ৩০ সংগঠনকে জয় বাংলা ইয়ুথ অ্যাওয়ার্ড প্রদান করা হয় । সজীবের হাতেখড়ি সংগঠনটি সুবিধা বঞ্চিত জনগোষ্ঠির ক্ষমতায়ণ ক্যাটাগড়িতে প্রথম স্থান অর্জণ করে।
সজীব ওয়াজেদ জয় বিজয়ীদের নাম ঘোষণাকালে বলেন, আওয়ামী লীগ যতদিন ক্ষমতায় থাকবে, ততদিন দেশ এগিয়ে যাবে। আমরা সমাধান করতে চাই। যারা সমাধান করতে চায়, আমরা তাদের সাথে আছি। এটা নেই, ওটা নেই বলে নালিশ শুনতে শুনতে কান ব্যথা হয়ে গেছে। যারা নেতৃত্ব দিতে চায়, আমরা তাদের সাথে আছি।
২০১৪ সালে আত্মপ্রকাশের পর আওয়ামী লীগের গবেষণা সংস্থা সেন্টার ফর রিসার্চ অ্যান্ড ইনফরমেশন (সিআরআই)-এর তরুণদের প্রতিষ্ঠান ইয়াং বাংলা মুক্তিযুদ্ধের ঐতিহাসিক ¯েøাগান ‘জয় বাংলা’র নামে চালু করে ‘জয় বাংলা ইয়ুথ অ্যাওয়ার্ড’। দেশ ও নিজ সমাজের উন্নয়নে কাজ করে যাওয়া তরুণদের স্বীকৃতি দিতে এই পুরস্কার প্রদান করা হয়। বিগত তিনটি আয়োজনের ধারাবাহিকতায় এবারো দেশ গঠনে কাজ করে যাওয়া তরুণদের ৬০০ সংগঠন থেকে শীর্ষ ৩০ সংগঠনকে বিজয়ী হিসেবে ঘোষণা করা হয়।
মাদকবিরোধী সচেতনতা কার্যক্রম, করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে জরুরি কার্যক্রম, পরিবেশ এবং জলবায়ু পরিবর্তন সম্পর্কিত কার্যক্রম, স্বাস্থ্য শিক্ষা এবং সচেতনতা কার্যক্রম, সামাজিক-সাংস্কৃতিক উদ্যোগ এবং দুর্যোগ মোকাবিলা ও ঝুঁকি হ্রাস।
বিজয়ীদের হাতে সার্টিফিকেট, ক্রেস্ট ও ল্যাপটপ পৌঁছে দেয়া হবে। এ ছাড়াও শীর্ষ মনোনয়ন পাওয়া সকল তরুণ সংগঠন পাবে সার্টিফিকেট।
এবার জয় বাংলা ইয়ুথ অ্যাওয়ার্ডে আবেদন করে ১৮ থেকে ৩৫ বছর বয়সী তরুণদের ৬০০ সংগঠন। নারী ক্ষমতায়ন, শিশু অধিকার, বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন শিশুদের ক্ষমতায়ন, যুব উন্নয়ন, দরিদ্রদের উন্নয়ন, মাদকমুক্ত সমাজ বিনির্মাণ, করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ভূমিকা রাখা, পরিবেশ সুরক্ষা, শিক্ষা, সংস্কৃতি, নবায়নযোগ্য জ্বালানি উৎপাদনসহ আরো বেশ কিছু ক্ষেত্রে অবদানের জন্য এই সংগঠনগুলো থেকে বাছাই করে ৫০ সংগঠনকে রাখা হয়েছে প্রাথমিক জয় বাংলা ইয়ুথ অ্যাওয়ার্ড-২০২০ বিজয়ীর তালিকায়।
প্রায় তিন লাখ সদস্য, ৫০ হাজারের বেশি স্বেচ্ছাসেবী এবং ৩১৫টির বেশি সংগঠনকে সঙ্গে নিয়ে চলা ‘ইয়াং বাংলা’র লক্ষ্য- ‘ভিশন-২০২১’ এ দেশের উন্নয়নমূলক কর্মকান্ডে তরুণ প্রজন্মকে সরাসরি অন্তর্ভুক্ত করা এবং তাদের নতুন ধারণা ও উদ্ভাবনকে বিশ্বে তুলে ধরা।

Leave a Reply

x

Check Also

মঠবাড়িয়ায় ৫ ফুট লম্বা অজগর সাপ উদ্ধার; সুন্দর বনে অবমুক্ত

মঠবাড়িয়া প্রতিনিধিঃ পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় সোমবার রাতে ৫ ফুট লম্বা একটি অজগর সাপ উদ্ধার করেছে মঠবাড়িয়া ...