ব্রেকিং নিউজ
Home - অপরাধ - পিরোজপুরে কাপড় ব্যবসায়ীর ওপর হামলা : বিচার দাবী

পিরোজপুরে কাপড় ব্যবসায়ীর ওপর হামলা : বিচার দাবী

পিরোজপুর প্রতিনিধি :
পিরোজপুর শহরের এক কাপড় ব্যবসায়ীকে মারধর ও দোকানে হামলা চালিয়ে লুটপাটের ঘটনার প্রতিবাদ ও বিচারের দাবিতে আন্দোলনে নেমেছে শহরের ব্যবসায়ীরা। হামলাকারীদের বিচারের দাবীতে শহরের ব্যবসায়ীরা দোকান বন্ধ রেখে ও বিক্রি বন্ধ করে বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করেছে। এদিকে কাপড় ব্যবসায়ীদের আন্দোলনের সাথে একমত প্রকাশে করে জেলা ব্যবসায়ী সমিতির ৫৬ টি সংগঠন একসাথে আন্দোলন করায় উত্তাল হয়ে উঠেছে পিরোজপুর শহর। রোববার সকাল থেকেই পিরোজপুর শহরের বিভিন্ন দোকানের সামনে এমন চিত্র দেখা যায়।
জানা যায়, পিরোজপুর শহরের কাপুড়িয়া পট্টির মুঈন গার্মেন্টসের ব্যবাসায়ী রেজওয়ান খান সুইটের সাথে কাপড় ক্রয় নিয়ে ঝগড়ার জেড়ে শনিবার দুপুরে একদল যুবক এসে তার উপর হামলা চালিয়ে তাকে আহত করে এবং দোকানের মালামাল লুটপাট করে নিয়ে যায়। তাৎক্ষনিক প্রতিবাদ জানিয়ে শহরের কাপড় ব্যবসায়ীরা জড়িতদের আটকের দাবীতে রাস্তায় বিক্ষোভ মিছিল করে। পরে কাপড় ব্যবসায়ীরা তাদের দোকান বন্ধ করে প্রতিবাদ জানান। এরই ধারাবাহিকতায় জড়িতদের গ্রেপ্তার সহ বিচারের দাবীতে রোববার জেলার ব্যবসায়ীরা বেলা ১১.০০ টা থেকে ১১.১০ মিনিট পর্যন্ত সকল প্রকার বিক্রি বন্ধ রেখে প্রতিবাদ জানান।
ব্যবসায়ীরা এ সময় জানান, স্থানীয় কিছু যুবক ছাত্রলীগের নাম ব্যবহার করে বিভিন্ন সময় তাদের উপর হামলা চালিয়ে ব্যবসায়ীদের ক্ষতিগ্রস্থ করে আসছে। তাই ব্যবসায়ীরা প্রশাসনের কাছে তাদের গ্রেপ্তার সহ বিচারের দাবী করেন। ব্যবসায়ীদের এ আন্দোলনে উত্তপ্ত হয়ে উছেছে শহর।
আহত ব্যবসায়ী রেজওয়ান খান সুইট বলেন, গতকাল শনিবার সকালে আমার দোকানে স্থানীয় কিছু ছেলেরা আসে কেনাকাটা করার জন্য। তাদের সাথে দামে বোনাবোনি ঠিক না হওয়ায় পরবর্তীতে তারা লোকজন নিয়ে আমার উপরে হামলা চালায়। এ সময় তারা দোকানপাট ভাঙচুর করে দোকানের ক্যাশে থাকা প্রায় ৮৫ হাজার টাকা লুট করে নিয়ে যায় এবং আমাকে মারধর করে। এতে দোকানে প্রায় আড়াই লক্ষাধিক টাকার ক্ষতিসাধন হয়েছে। আমরা থানায় জানিয়েছি, দেখি পুলিশ কি ব্যবস্থা নেয়।
পাদুকা ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক আল আমিন সরকার বলেন, মাহিম চয়েজ, সু গ্যালারী, সিটি শপিং কমপ্লেক্সসহ বিভিন্ন দোকানে এর আগেও তারা হামলা চালিয়েছে। আমরা ব্যবসায়ীরা একতাবদ্ধভাবে বলা শুরু করলে প্রশাসন, ছাত্রলীগ, ছাত্রদল কোন কিছুই দেখবো না বলে আশ^াষ দেয়। আমরা প্রশাসনকে ৭ দিনের আল্টিমেটাম দিয়েছি। যদি এর মধ্যে ঘটনার সুষ্ঠু বিচার না হয় তবে আমরা কঠোর অবস্থান নিতে বাধ্য হবো।
ব্যবসায়ী জাহিদ হোসেন বলেন, পিরোজপুর জেলা ছাত্রলীগের কিছু নামধারী সন্ত্রাসীরা আছে যারা বিভিন্ন সময় দোকানপাটে হামলা চালায়। চাঁদা না দিলেই তারা বিভিন্ন সময় আমাদের উপর হামলা করে। গতকালও একই কাজ করেছে তারা। আমরা সরকারকে ভ্যাট-ট্যাক্স দিয়ে ব্যবসা করি। আমরা তো সন্ত্রাসী না, আমাদের উপর কেন বারবার সন্ত্রাসী হামলা হবে । আমরা এর প্রতিবাদসহ সুষ্ঠু বিচার চাই। দ্রুত সময়ে এর সুষ্ঠু বিচার না হলে আমরা পরবর্তীতে অনির্দিষ্টকালের জন্য সব প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দিবো।
পিরোজপুর পৌর কাউন্সিলর সাদুল্লাহ লিটন বলেন, পিরোজপুরে ইদানিং কিছু মাদকাসক্ত ছেলেরা ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা চালায়। দাম-দর করতে আসে। বোনাবোনি না হলে তারা সেগুলো নিয়েও যায়। তাতে বাধার সৃষ্টি করলে বাধে হামলার ঘটনা।

পিরোজপুর সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আ. জা. মো: মাসুদুজ্জামান বলেন, ব্যবসায়ীদের উপর হামলার বিষয়ে একটি অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ বিষয়ে তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।

Leave a Reply

x

Check Also

পিরোজপুরের স্বরুপকাঠিতে বর্তমান ইউপি চেয়ারম্যানের দলবলের হামলায় সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান নিহত

পিরোজপুর প্রতিনিধি 🔴 পিরোজপুরের স্বরূপকাঠি উপপজেলার আটঘর কুড়িয়ানা ইউনিয়নে পূর্ব বিরোধ ও আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র ...