ব্রেকিং নিউজ
Home - অপরাধ - কাউখালীতে গ্রাম পুলিশ সদস্যের ওপর সন্ত্রাসী হামলা! অভিযুক্ত তিনজন গ্রেফতার 🔴ইন্দুরকানীতে দুই প্রবাসিকে মারধর

কাউখালীতে গ্রাম পুলিশ সদস্যের ওপর সন্ত্রাসী হামলা! অভিযুক্ত তিনজন গ্রেফতার 🔴ইন্দুরকানীতে দুই প্রবাসিকে মারধর

পিরোজপুর প্রতিনিধি 🔻
পিরোজপুরের ইন্দুরকানীতে কুয়েত প্রবাসি দুই সহোধরকে পিটিয়ে নগদ অর্থ ও স্বর্ণলংকার ছিনিয়ে নেয়ার অভিযোগ উঠেছে ইউপি চেয়ারম্যানের পুত্র সহ তার দলীয় লোকজনের বিরুদ্ধে। কাউখালীতে পূর্ব বিরোধের জের ধরে আব্দুল আলীম হাওলাদার(৫৪) নামে এক গ্রাম পুলিশ সদস্যকে লোহার রড দিয়ে পিটিয়ে গুরুতর জখম করেছে সংঘবদ্ধ সন্ত্রাসীরা।
জানাযায় পত্তাশী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও আওয়ামীলীগ নেতা হাওলাদার মোয়াজ্জেম হোসেনের সাথে দীর্ঘদিন ধরে পত্তাশী গ্রামের আনিচ আলী হাওলাদারের সাথে পারিবারিক বিরোধ চলে আসছে । এরই জের ধরে রোববার রাত ৮টার দিকে আনিচ হাওলাদারের কুয়েত প্রবাসি দুইপুত্র আল মামুন রুবেল (৩৪) ও আল মুনাল সোহেল (৩২) পত্তাশী বাজারে গেলে সজীব হার্ডওয়ার দোকানের সামনে মোয়াজ্জেম হাওলাদারের পুত্র মুন আল হাসান (২১) ওমর হোসেন সানি (২৬) ও চেয়ারম্যানের লোক নাসির উদ্দিন টুকু, সোরমান খান,রিয়াজ শেখ, আসলাম খান তরুন, আলাম ফকির অতর্কিত ভাবে দু’ভাইয়ের ওপর হামলা চালিয়ে রুবেল ও সোহেলকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে আহত করে । এসময় রুবেলের পকেটে থাকা ৮৩,৫০০/-টাকা ও গলায় থাকা ১ভরি ওজনের স্বর্ণের চেইন ছিনিয়ে নিয়ে যায় সন্ত্রাসীরা। গুরুত্ব আহত অবস্থায় দু’ভাইকে মোড়েলগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে ।
এবিষয় ইউপি চেয়ারম্যান হাওলাদার মোয়াজ্জোম হোসেন জানান, একটু ভুল বোজাবুজি হয়েছে এবং মারাত্মক কোন হামলার ঘটনা ঘটেনি ।
ইন্দুরকানী থানার ওসি মোঃ হুমায়ুন কবির জানান, হামলার ঘটনায় থানায় লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে। তদন্ত সহকারে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে ।
অপরদিকে কাউখালী উপজেলায় পূর্ব বিরোধের জের ধরে আব্দুল আলীম হাওলাদার(৫৪) নামে এক গ্রাম পুলিশ সদস্যকে লোহার রড দিয়ে পিটিয়ে গুরুতর জখম করেছে সংঘবদ্ধ সন্ত্রাসীরা। রবিবার দিনগত রাতে গ্রাম্য বাজার থেকে বাড়ি ফেরার পথে ওই গ্রাম পুলিশ সদস্য এ হামলার শিকার হন। এ ঘটনায় পুলিশ আজ সোমবার অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত তিনজনকে গ্রেফতার করেছে।
গ্রেফতারকৃতরা হলো, উপজেলার কেউন্দিয়া গ্রামের আব্দুর রহমান খন্দকারের দুই ছেলে সফিকুল ইসলাম উজ্জল(২২), আলীম খন্দকার(৩২) ও একই গ্রামের রফিকুল ইসলাম এর ছেলে সফিকুল ইসলাম সবুজ(১৯) ।
থানা ও হাসপাতাল সূত্রে জানাগেছে, উপজেলার কেউন্দিয়া গ্রামের মৃত বজলুর রহমানের ছেলে গ্রাম পুলিশ সদস্য আব্দুল আলীম হাওলাদার রবিবার রাত ১২টার দিকে কেউন্দিয়া বাজার থেকে বাড়ি ফেরার পথে একই গ্রামের সফিকুল ইসলাম সবুজের নেতৃত্বে ছয় জনের সংঘবদ্ধ একটি সন্ত্রাসী দল লোহার রড দিয়ে গ্রাম পুলিশ সদ্যের ওপর অতর্কিতে হামলা চালায়। সন্ত্রাসীরদের লোহার রডের পিটুনীতে তার মাথা ফেটে গুরুতর রক্ত জখম হয়। এসময় তিনি আর্ত চিৎকার দিয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়েন। স্থানীয়রা চিৎকার শুনে এগিয়ে এলে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়। আহত গ্রাম পুলিশ সদস্যকে উদ্ধার করে কাউখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।
এ ঘটনায় আহত গ্রাম পুলিশ সদস্য বাদি হয়ে অভিযুক্ত ছয় জনকে আসামী করে আজ সোমবার কাউখালী থানায় একটি মামলা দায়ের করলে পুলিশ তিনকে গ্রেফতার করে আদালতে সোপর্দ করে।

কাউখালী থানার অফিসার ইনচার্জ বনি আমীন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, এ ঘটনায় আহত গ্রাম পুলিশ সদস্য বাদি হয়ে ছয় জনকে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করেছেন। অভিযান চালিয়ে তিন জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকি আসামীদেও গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

Leave a Reply

x

Check Also

মঠবাড়িয়ার তুষখালী কলেজের নতুন নামকরণ ‘তুষখালী মহিউদ্দিন মহারাজ কলেজ’

মঠবাড়িয়া প্রতিনিধি 🔴 পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া উপজেলার ‘তুষখালী কলেজ’ এর নাম পরিবর্তিত হয়ে নতুন নামকরণ করা ...