যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ায় প্রতিবন্ধী সেবাকেন্দ্রে একটি পার্টিতে নির্বিচারে গুলি চালিয়ে ১৪ জনকে হত্যার জন্য দায়ী দম্পতির একজন আইএস নেতা আবু বকর আল-বাগদাদীর প্রতি আনুগত্য প্রকাশ করেছিলেন বলে যুক্তরাষ্ট্রের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন।

হত্যাকাণ্ড চালানোর সময় ফেইসবুকে এক পোস্টে তাশফিন মালিক আইএসের নেতৃত্বের প্রতি আনুগত্য প্রকাশ করেন বলে ওই ঘটনা তদন্তের সঙ্গে জড়িত কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে সিএনএনের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

বুধবার স্থানীয় সময় বেলা ১১টার দিকে ক্যালিফোর্নিয়ার স্যান বার্নার্ডিনো শহরের ইনল্যান্ড রিজিওনাল সেন্টারে এক পার্টিতে রাইফেল নিয়ে ঢুকে এলোপাতাড়ি গুলি চালান তাশফিন (২৭) ও তার স্বামী রিজওয়ান ফারুক (২৮)। এতে ১৪ জন নিহত ও ২১ জন আহত হন।

US3হামলার পরপরই পুলিশের অভিযানে ব্যাপক গোলাগুলির মধ্যে বন্দুকধারী ওই দম্পতি নিহত হন। পরে রিজওয়ান-তাশফিন দম্পতির বাড়িতে তল্লাশি চালিয়ে বিপুল পরিমাণ বিস্ফোরক, অস্ত্র এবং কয়েক হাজার রাউন্ড গুলি উদ্ধার করে পুলিশ।

তাশফিন ফেইসবুকে অন্য একটি অ্যাকাউন্ট থেকে বাগদাদীর প্রতি আনুগত্য প্রকাশ করে পোস্ট দিয়েছিলেন বলে যুক্তরাষ্ট্রের কর্মকর্তারা জানান। হামলার আগে ওই দম্পতি তাদের কম্পিউটারের হার্ড ড্রাইভসহ যাবতীয় ইলেকট্রনিক যন্ত্রপাতি ধ্বংস করে ফেলেন বলে তারা জানিয়েছেন।

বিশ্বজুড়ে তাদের নামে ‘শত্রুদের’ ওপর হামলা চালানোর জন্য সমর্থকদের প্রতি আহ্বান রয়েছে আইএসের। এই জঙ্গি গোষ্ঠীর সংবাদ মাধ্যম ‘আমাক’র ওয়েবসাইটে এই হামলার দায় স্বীকার করা হয়েছে বলে রয়টার্স জানিয়েছে।

US2পাকিস্তানে জন্ম নেওয়া তাশফিন মালিক যুক্তরাষ্ট্রে বসবাসের আগে সৌদি আরবে ছিলেন। আর পাকিস্তানি বংশোদ্ভূত যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিক রেজওয়ান ফারুক স্যান বার্নার্ডিনো কাউন্টি স্বাস্থ্য বিভাগের পরিদর্শক হিসাবে কাজ করতেন।

সৌদি আরবে হজে গিয়ে দুই বছর আগে তাশফিনের সঙ্গে পরিচয়ের পর বিয়ে করেন তারা। এই দম্পতির ছয় মাস বয়সী এক সন্তানও রয়েছে বলে গণমাধ্যমে এসেছে।

স্থানীয় জনস্বাস্থ্য বিভাগের হলিডে পার্টিতে এই হামলা হয়, যাতে ওই দম্পতিও যোগ দিয়েছিলেন। পুলিশ ও সরকারের কর্মকর্তাদের ধারণা, হলিডে পার্টিতে কয়েকজনের সঙ্গে ঝগড়ার পর বেরিয়ে গিয়ে ওই দম্পতি এই হামলায় নেতৃত্ব দেন।

মন্তব্য নেই

মন্তব্য করুন