আল রেযা রায়হানঃ- হঠাৎ তীব্র গরম অবার ঘনঘন লোডশেডিংয়ে অস্থির হয়ে পড়ছে জনজীবন ৷
গরমের প্রখরতা প্রাকৃতিক হলেও দিনে রাতে ঘন ঘন লোডশেডিংয়ে সাধারন মানুষ চরম বিরক্ত ও ক্ষুব্ধ হয়ে উঠেছে। তবে বিদ্যুৎ অফিস বলছে চাহীদার অর্ধেক বিদ্যুৎ সরবরাহ পাওয়ায় লোডশেডিং বেড়েছে। আর এতে নাভিশ্বাস উঠেছে জনজীবন। পাথর ঘাটা এলাকায় রাস্তাার পাশে বসা এক ব্যবসায়ি বলেন, গরমে শরীর পুড়ে যাওয়ার অবস্থা হচ্ছে। একটু পরপরই পানি খেতে হচ্ছে। এ অবস্থায় কোন কাজ-বাজই ভাল লাগেনা। ৭ম শ্রেণীর ছাত্র জানান, গরমে ক্লাশ করতে আমাদের খুবই কষ্ট হয়। বার বার পানির পিপাষা লাগে। অন্যদিকে অব্যাহত লোডশেডিংয়ে জীবর অতিষ্ঠ হয়ে উঠছে। উপজেলা স্বাস্থ্য ও পঃ পঃ কর্মকর্তা জানান, গরমে শারিরীক সুস্থতা শ্চিত করার জন্য বেশী বেশী বিশুদ্ধ পানি পান করতে হবে। লবণশূন্যতা পূরণের জন্য খাবার স্যালাইন, ডাব প্রাকৃতিক উৎস থেকে সংগৃহিত ফলের রস খেতে হবে। বেশি মসলাযুক্ত ও রাস্তার খোলা খাবার এড়িয়ে যেতে হবে। যতটা সম্ভব রোদে না যাওয়া উচিত। এছাড়া পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন থাকার পাশাপাশি শিশু, বৃদ্ধ ও গর্ভবতীদের ক্ষেত্রে বাড়তি সজাগ থাকতে হবে । পিরোজপুরের পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির আওতাধীন পাথর ঘাটা উপজেলার পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির ঘন ঘন বিদ্যুৎ বিভ্রাট ও সমিতির উদাসীনতার জন্য গ্রাহকদের মধ্যে চরম অস্থিরতা ও ক্ষোভ বিরাজ করছে।

SIMILAR ARTICLES

মন্তব্য নেই

মন্তব্য করুন