দেবদাস মজুমদার ▶️

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ার বেতমোর গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা ও মুক্তিযুদ্ধকালীন সুন্দরবন অঞ্চলের সাবসেক্টর কমান্ডের ইয়াং অফিসার ও মঠবাড়িয়া থানা কমান্ডের কমান্ডিং অফিসার ক্যাপ্টেন (অব:) মো. আলতাফ হোসেন আকন আজ সোমবার সকাল নয়টায় ঢাকায় জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউট হাসপাতালে ইন্তেকাল করেছেন( ইন্নালিল্লাহি…রাজিউন) । তিনি গত এক সপ্তাহ ধরে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে লাইফ সাপোর্টে ছিলেন।
তিনি স্ত্রী, এক ছেলে ও দুই মেয়েসহ অসংখ্য আত্মীয়-স্বজন ও গ্রণগ্রাহী রেখে গেছেন। উপজেলার
মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সূত্রে জানাগেছে, মঠবাড়িয়া উপজেলার বেতমোর রাজপাড়া গ্রামের মৃত আবুল হাসেম আকনের ছেলে ক্যাপ্টেন(অব 🙂 মো. আলতাফ হোসেন আকন মহান মুক্তিযুদ্ধে উপকূলীয় সুন্দরবন অঞ্চলের সম্মূখ যুদ্ধে অংশ নেন। তিনি সুন্দরবন সাবসেক্টর কমান্ডে ইয়াং অফিসারের দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি মঠবাড়িয়া থানা কমান্ডের কমান্ডিং অফিসারের দায়িত্ব পালন করেন। তাঁর নেতৃত্বে ১৯৭১ সালের ১৮ ডিসেম্বর মঠবাড়িয়া অঞ্চলের স্বাধীনতা বিরোধিরা আত্মসমর্পণ করলে মঠবাড়িয়া রাজাকার মুক্ত হয়।
৬৯ বছর বয়সী এ মুক্তিযোদ্ধা কয়েকবছর ধওে দুরারোগ্য হৃদরোগে আক্রান্ত হন। গত এক সপ্তাহ আগে তাঁকে জাতীয় হুদরোগ ইনস্টিটিউট হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে তিনি নিবিঢ় পরিচর্য্যা কেন্দ্রে চিকিৎসাধিন থাকা অবস্থায় আজ সোমবার সকাল নয়টায় শেষ নি:শ্বাস ত্যাগ করেন। তাঁর মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়লে মঠবাড়িয়াসহ উপকূলের মুক্তিযোদ্ধারা শোকাহত হয়ে পড়েন।
আগামীকাল মঙ্গলবার সকাল নয়টায় মঠবাড়িয়া কেন্দ্রীয় ঈদগাহ ময়দানের তাঁর প্রথম নামাজে জানাজা ও উপজেলার বেতমোর মাধ্যমিক বিদ্যালয় মাঠে দ্বিতীয় দফা জানাজা শেষে তাঁকে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হবে।
বীর মুক্তিযোদ্ধা প্রয়াত ক্যাপ্টেন আলতাফ হোসেন মৃত্যুতে পিরোজপুর-৩ মঠবাড়িয়া আসনের সংসদ সদস্য ডা. রুস্তম আলী ফরাজি, উপজেলা চেয়ারম্যান মো. আশরাফুর রহমান, মঠবাড়িয়া পৌর মেয়র রফিউদ্দিন ফেরদৌসসহ মঠবাড়িয়া মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, মঠবাড়িয়া উপজেলা আওয়ামীলীগ, মঠবাড়িয়া প্রেস ক্লাব ও বাংলাদেশ উদীচী শিল্পী গোষ্ঠী মঠবাড়িয়া শাখার নেতারা গভীর শোক প্রকাশ করেছেন

মন্তব্য নেই

মন্তব্য করুন