মঠবাড়িয়া প্রতিনিধি >

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় হাফিজা আক্তার রোমানা (২০) নামে গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যুর ঘটনায় স্বামী নূরুল আমীনকে গ্রেফতার করেছে থানা পুলিশ। রবিবার দিবাগত রাতে  গলায় ফাঁস লাগানো অবস্থায় পুলিশ ওই গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করে।
নিহত হাফিজা উপজেলার সাপলেজা ইউনিয়নের খেতাছিড়া গ্রামের জেলে জাহাঙ্গীর হাওলাদারের মেয়ে। পুলিশ গৃহবধূর লাশের ময়নাতদন্তের জন্য আজ সোমবার পিরোজপুর জেলা হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে।
থানা ও স্থানীয়দের সূত্রে জানাগেছে, সাত মাস পূর্বে হাফিজা আক্তার রোমানার সাথে পার্শ্ববর্তী পাথরঘাটা উপজেলার বড়ইতলা গ্রামের নূরুল আমীনের বিয়ে হয়। বিয়ের সময় স্বামী নূরুল আমীন প্রথম বিয়ে গোপন করে দ্বিতীয় বিয়ে করে। পরে রোমানা জানতে পেরে তাদের মধ্যে কলহ চলে আসছিল। নূরুল আমীনগত তিন দিন আগে শ্বশুর বাড়িতে বেড়াতে আসে। এসময় সে প্রথম স্ত্রীর সাথে মুঠোফোনে কথা বলা নিয়ে নূরুল আমীনের সাথে রোমানার ঝগড়া হয়। এতে অভিমান করে রোমানা রেবিবার সন্ধ্যায় গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করে। খবর পেয়ে থানা পুলিশ ওই গৃহবধূর বাবার বাড়ি থেকে লাশ উদ্ধার করে।

এ ব্যাপারে মঠবাড়িয়া থনার অফিসার ইনচার্জ খন্দকার মোস্তাফিজুর রহমান জানান, এ ঘটনায় আত্মহত্যা প্ররোচনার অভিযোগে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। গ্রেফতারকৃত নূরুল আমীনকে আজ সোমবার আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।

SIMILAR ARTICLES

মন্তব্য নেই

মন্তব্য করুন