সৌদি আরবে নারী শ্রমিকের পাশাপাশি পুরুষ শ্রমিকও নিতে আহ্বান জানিয়েছে বাংলাদেশ। বিষয়টি বিবেচনার আশ্বাস দিয়েছে সৌদি আরব।

বাংলাদেশে এমন অনেক নারী শ্রমিক আছে যারা সৌদি আসতে আগ্রহী কিন্তু তারা একা একা সৌদি আরবে আসা নিরাপদ মনে করে না। তাই নারী শ্রমিকের পাশাপাশি সৌদি আরবের পুর্ব প্রতিশ্রুত হাউজ ড্রাইভার এবং হাউজ ক্লিনার এবং অন্যান্য কর্মক্ষেত্রের জন্য পুরুষ শ্রমিক আনা হলে অনেক নারী শ্রমিকও পাওয়া যাবে।

গত মঙ্গলবার সৌদি আরবের অর্থমন্ত্রী ইব্রাহীম বিন আব্দুল আজিজ আল আসসাফ এবং রিয়াদ চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিজের সঙ্গে বৈঠকের পর অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত এসব কথা বলেন।

অর্থমন্ত্রী আরও বলেন, আমরা সৌদি আরবকে বাংলাদেশে এককভাবে বিনিয়োগ করার প্রস্তাব দিয়েছি। আমরা তাদেরকে বলেছি যে আমাদের দুই দেশের মধ্যে প্রায় ৪১বছরের সম্পর্ক অথচ একক ভাবে কোনো প্রকল্প নাই।

বৈঠকে সৌদি আরব বাংলাদেশ অর্থনৈতিক সম্পর্ক নিয়েও বিভিন্ন আলোচনা হয়। আগামীতে সৌদি আরব থেকে বাংলাদেশে বাকিতে সার সরবরাহ করবে বলেও জানান অর্থমন্ত্রী। কিছুদিন আগেও সৌদি আরব বাংলাদেশ থেকে কিছুই আমদানি করতো না, তবে এখন গার্মেন্টস পণ্যসহ বিভিন্ন পণ্য আমদানি করা হচ্ছে সৌদি আরবে।

বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন সৌদি আরবে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত গোলাম মসিহ, মিশন উপ প্রধান মো. নজরুল ইসলাম, ইকোনমিক কাউন্সিলর আবুল হাসান, শ্রম কাউন্সিলর সারওয়ার আলম, অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের অতিরিক্ত সচিব মো. সেলিম রেজা, অর্থমন্ত্রীর একান্ত সচিব জাকারিয়া হক প্রমুখ।

SIMILAR ARTICLES

মন্তব্য নেই

মন্তব্য করুন