পিরোজপুর প্রতিনিধি <>
পিরোজপুরের মানুষের দীর্ঘদিনের দাবী ও চাহিদা একটি বিশেষায়িত বিশ^বিদ্যালয়ের। মানুষের চাহিদার প্রতি সম্মান জানিয়ে আজ বুধবার প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনা পিরোজপুরে একটি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনের চুড়ান্ত অনুমোদন প্রদান করেছেন। এর আগে গত ২ জুলাই স্থানীয় সংসদ সদস্য ও গৃহায়ন ও গনপূর্ত মন্ত্রী শ.ম রেজাউল করিম পিরোজপুরে একটি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনের জন্য প্রধান মন্ত্রীর কাছে আবেদন জানান। ওই আবেদনের প্রেক্ষিতে গত ২১ জুলাই প্রধান মন্ত্রীর কার্যালয় থেকে পিরোজপুরে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনের যৌক্তিকতা জানতে চেয়ে শিক্ষা মন্ত্রনালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগকে চিঠি দেয়া হয়। সে প্রেক্ষিতে গত ১৫ সেপ্টেম্বর মন্ত্রনালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগ বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন করা যেতে পারে বলে প্রধান মন্ত্রীর কার্যালয়কে জানিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রনালয়।
মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের যুগ্মসচিব সৈয়দ আলী রেজা স্বাক্ষরিত ওই চিঠিতে বলা হয়, পিরোজপুর জেলার পার্শ্ববর্তী বাগেরহাট ও ঝালকাঠী জেলায় কোন বিশ্ববিদ্যালয় নাই। বিভাগীয় শহর বরিশালে একটি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় থাকলেও কোন বিশেষায়িত বিশ্ববিদ্যালয় নাই। পটুয়াখালী জেলায় একটি বিশেষায়িত বিশ্ববিদ্যালয় (পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়) থাকলেও পটুয়াখালী পিরোজপুরের নিকটবর্তী কোন জেলা নয়।
চিঠিতে আরো বলা হয়, পার্র্শ্ববর্তী জেলাগুলোতে কোন বিশ্ববিদ্যালয় না থাকায় পিরোজপুরে একটি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন করা হলে পিরোজপুর সহ দক্ষিনাঞ্চলে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি ভিত্তিক উচ্চশিক্ষা গ্রহনের অধিক সুযোগ সৃষ্টি হবে। তাই পিরোজপুরে সরকারী উদ্যোগে একটি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন করা যেতে পারে বলে প্রধান মন্ত্রীর কার্যালকে অবহিত করানো হযেছে ওই চিঠির মাধ্যমে।
এ ব্যাপারে স্থানীয় এমপি গৃহায়ন ও গনপূর্ত মন্ত্রী শ.ম রেজাউল করিম জানান, পিরোজপুরে একটি বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনের জন্য গত ২ জুলাই প্রধান মন্ত্রীর কাছে আবেদন জানালে তিনি পিছিয়ে পড়া এ এলাকার মানুষের উচ্চ শিক্ষার প্রয়োজনীয়তার কথা ও দেশের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির উপর শিক্ষাকে আরো গতিশীল করতে এখানে আজ (৯ অক্টোরব) এখানে বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনের চুড়ান্ত অনুমোদন প্রদান করেন।

SIMILAR ARTICLES

মন্তব্য নেই

মন্তব্য করুন