নিজস্ব প্রতিবেদকঃ
সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক সরকার খুলে দিয়েছে। এর আগে ১৮ নভেম্বর যখন ফেসবুক, ভাইবার, হোয়াটসঅ্যাপ, মেসেঞ্জার বন্ধ করে দেওয়া হয় তখন সুনির্দিষ্ট করে কোনো কারণ উল্লেখ করা হয়নি। তবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, জনগণের স্বার্থে ফেসবুক বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।
বৃহস্পতিবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয় এ নিয়ে মুখ খুলেছেন।
কাল সন্ধ্যা ৭টার দিকে নিজ ফেসবুকে পোস্ট করা এক স্ট্যাটাসে তিনি বলেছেন, বিএনপি নেতা সালাউদ্দিন কাদের (সাকা) চৌধুরী ও জামায়াত নেতা আলী আহসান মোহাম্মদ মুজাহিদের ফাঁসি ঘিরে সহিংসতা উসকে দেওয়ার আশঙ্কায় ফেসবুক বন্ধ করা হয়েছিল।
জয় বলেন, ‘ফেসবুক এখন আবারও বাংলাদেশে খুলে দেওয়া হয়েছে। এটা খুবই দুর্ভাগ্যজনক যে জামায়াতি সন্ত্রাসীরা গুজব ছড়িয়ে সহিংসতা উসকে দেওয়ার মাধ্যম হিসেবে একে ব্যবহার করে। যেজন্য যুদ্ধাপরাধী মুজাহিদ ও সাকার ফাঁসির আগে এটা বন্ধ করা হয়েছিল।’
এর আগে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামালসহ মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রী পর্যায়ের অনেকেই বলেছিলেন জনগণের নিরাপত্তার স্বার্থে ফেসবুক বন্ধ রাখা হয়। জয় প্রথম বললেন জামায়াতের কারণে ফেসবুক বন্ধ ছিল।
প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা আরো বলেন, ‘গণহত্যাকারীদের পক্ষ হয়ে চালানো ব্যাপক আন্তর্জাতিক অপপ্রচারের মুখেও এটা শুধুই আমাদের আওয়ামী লীগ সরকারের নেতৃত্বে থাকা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাহসিকতার জন্যই স্বাধীনতা যুদ্ধে ৩০ লাখ শহীদদের প্রতি সুবিচার করা সম্ভব হয়েছে।’
গত ২১ নভেম্বর রাতে যুদ্ধাপরাধের দায়ে সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরী ও আলী আহসান মোহাম্মাদ মুজাহিদের ফাঁসি কার্যকর করা হয়। এর আগে ১৮ নভেম্বর ফেসবুক, ভাইবার, হোয়াটসঅ্যাপ, মেসেঞ্জার বন্ধ করে দেওয়া হয়। তিন সপ্তাহ পর ফেসবুক খুলে দেওয়া হয়েছে।

SIMILAR ARTICLES

মন্তব্য নেই

মন্তব্য করুন