আজ থেকে ৫মাস আগে পাষন্ড স্বামী নিজের শরীর ব্লেড দিয়ে ক্ষত বিক্ষত করে।

 মঠবাড়িয়া  প্রতিনিধি >

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় মাদকাসক্ত স্বামীকে তালাক দেয়ায় ক্ষুদ্ধ হয়ে স্ত্রী রাবেয়া বেগম (৩২)নামে ধারালো ছুরি দিয়ে কুপিয়ে নৃশংসভাবে খুন করেছে  পাষন্ড স্বামী সাগর সরদার ওরফে মিন্টু। বুধবার দিবাগত গভীর রাতে উপজেলার টিকিকাটা ইউনিয়নের বড়শিংগা গ্রামে এ হত্যাকান্ড ঘটেছে। এলাকাবাসী ওই রাতেই ঘাতক স্বামীকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে। নিহত গার্মেন্ট কর্মী রাবেয়া বড়শিংগা গ্রামের দিনমজুর আব্দুল হালিম মৃধার মেয়ে। নিহত গৃহবধূর খাদিজা নামে ১৪ মাস বয়সি একটি কন্যা সন্তান রয়েছে।
ঘাতক সাগর সরদার মুন্সিগঞ্জ জেলার ইসলামপুর গ্রামের নাদের সর্দারের ছেলে । পেশায় সে অটো চালক ।devdas-pic-murder-4
এ ঘটনায় নিহতের পিতা হালিম মৃধা বাদী হয়ে আজ বৃহস্পতিবার সকালে সাগরকে প্রধান আসামী করে মঠবাড়িয়া থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করে।
থানা ও পারিবারিক সূত্রে জানাযায়, এক সন্তানের জননী তালাক প্রাপ্তা রাবেয়াকে গত সাত বছর আগে মুন্সিগঞ্জ জেলার ইসলামপুর গ্রামের নাদের সর্দারের ছেলে অটো চালক সাগরকে বিয়ে করে। বিয়েরপর থেকেই সাগর নেশার টাকার জন্য রাবেয়ার ওপর শারীরীক ভাবে চালিয়ে আসছিল। একপর্যায় গত ৬মাস আগে স্ত্রী রাবেয়া অতিষ্ট হয়ে ঢাকার বাসা থেকে পালিয়ে বাবার বাড়িতে এসে স্বামীকে তালাক দেয়। স্ত্রীর তালাক পেয়ে ক্ষুদ্ধ হয়ে গত ৫ মাস আগে সাগর মঠবাড়িয়া রাবেয়ার বাড়ি গিয়ে স্ত্রীকে পেতে ব্যর্থ হয়ে ব্লেড দিয়ে নিজের শরীর রক্তাক্ত করে।
গতকাল রাতে রাবেয়া প্রাকৃতিক ডাকে ঘরের বাইরে গেলে ওৎ পেতে থাকা ক্ষুদ্ধ স্বামী ধারালো ছুড়ি দিয়ে নৃশংসভাবে কুপিয়ে রাবেয়াকে হত্যা করে।

মঠবাড়িয়া থানা অফিসার ইনচার্জ খন্দকার মোস্তাফিজুর রহমান জানান, লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য জেলা মর্গে প্রেরন করা হয়েছে। গ্রেফতারকৃত সাগরকে আজ বৃহস্পতিবার সকালে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

► এই পাষন্ডের ৫মাস আগে নিজের শরীর ব্লেড দিয়ে ক্ষত বিক্ষত করার খবর পড়তে এখানে ক্লিক করুন।
Pic Mathbaria-01 copy

SIMILAR ARTICLES

মন্তব্য নেই

মন্তব্য করুন