SONY DSC

মঠবাড়িয়া প্রতিনিধি :

ঘূর্ণিঝড় ফণীর সম্ভাব্য আঘাত মোকাবেলায় পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ব্যাপক আগাম প্রস্ততি নেয়া হয়েছে। এরই মধ্যে এই দুর্যোগের সম্ভাব্য আঘাত হানার বিষয়ে সিপিপি স্বেচ্ছাসেবক দল মেগাফোনে জনগণকে আগাম সতর্ক বার্তা দেয়া হচ্ছে। উপজেলার ঝুঁকিপূর্ণ হিসেবেবলেশ^ও নদ তীরবর্তী তুষখালী,বড়মাছুয়া, আমড়াগাছিয়া,সাপলেজা, বেতমোড় ইউনিয়নে সতর্ক সংকেত হিসেবে লাল পতাকা উত্তোলন করা হয়েছে। এসব এলাকায় সব ধরণের প্রস্ততি নিয়ে এরই মধ্যে কাজ শুরু করেছেন। বলেশ^র নদের মাঝের চরে জেলে বসতির মানুষজনদের আশ্রয় কেন্দ্রে নিয়ে আসা হয়েছে।

এর আগে বুধবার সন্ধ্যায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার জিএম সরফরাজ এর সভাপতিত্বে ফায়ার সার্ভিস প্রতিনিধি, ঘুর্ণিঝর প্রস্ততি কর্মসূচির (ঈচচ) ইউনিট টিম লিডার ও ইউপি চেয়ারম্যান ও সদস্যগণদের নিয়ে আগাম প্রস্ততি সভা করেন। সভায় সরকারী কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ছুটি বাতিল করা হয়েছে। দুর্যোগ মোকাবেলায় উপজেলা পরিষদে কন্ট্রোল রুম খোলা হয়েছে।

উপজেলার ৫৫টি সরকারি ঘূর্ণিঝড় আশ্রয়কেন্দ্র এবং বেসরকারি পর্যায়ের আশ্রয় কেন্দ্র হিসেবে স্কুল ,কলেজ, মাদ্রাসা, ইউনিয়ন পরিষদ, দুর্যোগ কবলিত জনগণের জন্য প্রস্তুত রাখা হয়েছে। উপজেলায় সিপিপির মোট ১হাজার ২৭৫ জন স্বেচ্ছাসেবক দুর্যোগ মোকাবেলা কমিউনিটি বেইজ কাজ করছেন।

SIMILAR ARTICLES

মন্তব্য নেই

মন্তব্য করুন