নিহত মো.নুরুল আমিন

চট্টগ্রাম : সাতকানিয়া পৌরসভায় ভোট দিয়ে বের হওয়ার পর কেন্দ্রের অদূরে বিএনপি ও আওয়ামী লীগের দু’পক্ষের সংঘর্ষে মো.নুরুল আমিন (৩৫) নামে এক ‘যুবদল নেতাকে’ গুলিতে নিহত হয়েছে।

বুধবার ভোট শুরুর তিন ঘণ্টার মধ্যে সাতকানিয়া কলেজ কেন্দ্রের হোস্টেল মাঠে কাউন্সিলর প্রার্থী মোজাম্মেল হক ও মনিরুল ইসলামের সমর্থকদের মধ্যে এ গোলাগুলিতে তিনি নিহত হন।

বিয়ষটি নিশ্চিত করে চট্টগ্রামের পুলিশ সুপার একে এম হাফিজ আক্তার বলেন, ‘ভোট কেন্দ্র থেকে বের হওয়ার পর কেন্দ্র থেকে বেশ কিছু দূরে নুরুল আমিন নামে একজন লোককে কে বা কারা গুলি করে হত্যা করেছে। বিয়ষটি আমরা খতিয়ে দেখছি। এটাকে নির্বাচনী সহিংসতা বলা যাবেনা।’

এদিকে বিএনপির পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে, নিহত নুরুল আমিন স্থানীয় যুবদলের নেতা। তবে কোন পদে সেটি এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়িনি। সাতকানিয়া কলেজ ভোট কেন্দ্রে বিএনপি প্রার্থীর পক্ষে দায়িত্ব পালনরত ছিলেন নুরুল আমিন। তাকে সরকার দলীয় সন্ত্রাসীরা গুলি করে হত্যা করেছে। নিহত নুরুল আমিন পৌরসভার ৯ নম্বরওয়ার্ডের আব্দুর রহিমের ছেলে।

এরআগে দেয়া এক প্রতিক্রিয়ায় বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্ঠা ও বিভাগীয় নির্বাচন মনিটরিং সেলের আহ্বায়ক মীর মোহাম্মদ নাছির উদ্দিন বলেছেন, চট্টগ্রামের ১০ পৌরসভায় সকাল ৯টার মধ্যেই সরকার দলীয় প্রার্থীরা ভোট কেন্দ্র দখল করে ভোট ছিনতাই করেছে। ভোট বর্জনের বাকী আছে আর কি। এটার দরকার নেই। সরকার দলীয় সন্ত্রাসীরা তো সকাল ৯টার মধ্যে সব কেন্দ্র নিজেদের দখলে নিয়েছে। সীতাকুণ্ডে আমাদের প্রার্থীর ওপর হামলা হয়েছে। রাউজান, চন্দনাইশ. সাতকানিয়া, মিরসরাইয়, বারৈয়ারহাট, সন্দ্বীপসহ চট্টগ্রামের সব উপজেলায় একই অবস্থা। ভোটের আগেই তারা জিতে গেছে। ভোট ছিনিয়ে নিয়ে তারা বিজয় নিশ্চিত করে ফেলেছে। এসব প্রহসনের নির্বাচনের কী দরকার ছিল?’

এদিকে ভোট গ্রহণের আগেই ব্যালেটে সিল মারার অভিযোগে চন্দনাইশে দুটি এবং গোলযোগ বাধায় একটি কেন্দ্রসহ মোট তিনটি কেন্দ্রে ভোট গ্রহণ স্থগিক করা হয়েছে। এচাড়া বিভিন্ন এলাকায় বিএনপির প্রার্থীদের এজেন্টরে কেন্দ্রে প্রবেশ করতে দেয়নি বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এদিকে সকাল ১১টার দিকে বাঁশখালীতে একটি কেন্দ্রে আওয়ামী লীগ ও বিএনপির মধ্যে গুলাগুলির খবর পাওয়া গেছে। নির্বাচনে ভোট কেন্দ্র দখলের অভিযোগএনে ইতোমধ্যে সন্দ্বীপ ও রাঙ্গুনিয়ায় বিএনপির প্রার্থী ভোট বর্জনের ঘোষণা দেয়ার খবরও প্রচজার হয়েছে। তবে দলটির পক্ষ থেকে আনুষ্ঠানিক কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

SIMILAR ARTICLES

মন্তব্য নেই

মন্তব্য করুন