মঠবাড়িয়া প্রতিনিধি  >>

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় আরিফ (১০) নামে একটি শিশু পথভুলে এখন থানা হেফাজতে রয়েছে। শিশুটি পুলিশের কাছে দেওয়া ভাষ্য মতে সে গত ২০ মে অজ্ঞাত এক ব্যাক্তির খপ্পড়ে পড়ে বাড়ির পথ হারিয়ে মঠবাড়িয়ায় চলে আসে। পথহারা শিশু আরিফকে বুধবার রাতে তুষখালী ইউপি চেয়ারম্যান মঠবাড়িয়া থানায় নিয়ে যায়। শিশুটির দেওয়া তথ্য অনুযায়ী পুলিশ তাকে স্বজনদের কাছে পৌঁছে দিতে প্রচেষ্টা চালাচ্ছে।

থানা পুলিশের কাছে দেওয়া শিশুটির তথ্যমতে জানাগেছে, শিশু আরিফ গাজিপুরের জয়দেবপুর শহরে একটি ব্যাংকে চাকুরীরত এক আত্মীয়র কাছ থেকে কিছু টাকা নিয়ে বাড়ি ফিরছিল। পথে অজ্ঞাত এক ব্যাক্তি আরিফকে একটি কলা খাইয়ে অজ্ঞান করে। এরপর আর সে কিছু মনে করতে পারছেনা। গত দুইদন আগেবাসে শিশুটি মঠবাড়িয়ার তুষখালী বাস স্টান্ডে নামে । চেনা জানা কেউ না থাকায় সে তুষখালী ইউনুস মোল্লার চায়ের দোকানের সামনে অসহায় বসে থাকে। চায়ের দোকানী শিশুটির বৃত্তান্ত জেনে তাকে আশ্রয় দেয়। পরে তিনি শিশুটির বাড়িতে পৌঁছে দেওয়ার জন্য বিষয়টি তুষখালী ইউপি চেয়ারম্যান অবহিত করেন। চেয়ারম্যান শিশুটিকে উদ্ধার করে থানা পুলিশকে জানিয়ে তাকে পুলিশ হেফাজতে পাঠায়। আজ বুধবার রাত নয়টা থেকে শিশুটি থানায় অবস্থান করছে।
শিশু আরফি জানায়, তার বাড়ি গাজিপুরের জয়দেবপুর থানার হোতাপাড়া গ্রামে। তার বাবা মৃত সিদ্দিকুর রহমান ও মাতা হ্যাপি বেগম। এদিকে শিশুটির দেওয়া তথ্য অনুসন্ধানে পুলিশ চেষ্টা চালাচ্ছে।

বিষয়টি নিশ্চিত কওে মঠবাড়িয়া থানার অফিসার ইনচার্জ ( তদন্ত) মোহাম্মদ মাজহারুল আমীন জানান, শিশুটির পথ হারিয়ে মঠবাড়িয়ায় চলে এসেছে। তার দেওয়া নাম ঠিকানা অনুযায়ী খোঁজ খবর নিতে জয়দেবপুর থানা পুলিশকে তথ্য পাঠানো হয়েছে। তার বাড়ির ঠিকানা ও স্বজনদের খাঁজ পেলেই শিশুটিকে হস্তান্তর করা হবে।

SIMILAR ARTICLES

মন্তব্য নেই

মন্তব্য করুন