কাউখালী প্রতিনিধি >>

পিরোজপুরের কাউখালীতে আব্দুল হাকিম হাওলাদার( ৮০)নামে এক বৃদ্ধ ভাতিজার লাঠির আঘাতে নিহত হয়েছেন। আজ সোমবার জমি-জমা সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে উপজেলার ধাবঢ়ী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।
নিহত বৃদ্ধ হাকিম হাওলাদার সয়না রঘুনাথপুর ইউনিয়নের ধাবঢ়ী গ্রামের মৃত গহর আলী হাওলাদারের ছেলে। নিহত ওই বৃদ্ধ ছয় সন্তানের জনক।

থানা ও স্থানীয়দের সূত্রে জানাগেছে, কাউখালী উপজেলার এক নম্বর সয়না রঘুনাথপুর ইউনিয়নের ধাবঢ়ী গ্রামের আব্দুল হাকিম হাওলাদারের সাথে একই বাড়ির ভাই সম্পর্কের কাদের হাওলাদার(কাদের ডিলার) এর সাথে জমির মালিকানা নিয়ে বিরোধ চলছিল। আজ সোমবার সকালে বাড়ির পাশের জমিতে দাড়িয়ে দুই পক্ষে কথার কাটাকাটি হয়। এক পর্যায় উত্তেজিত হয়ে কাদের হাওলাদারের হাতে থাকা বেতের লাঠি টেনে নিয়ে তার ছেলে মোজাহার হাওলাদার প্রতিপক্ষ বৃদ্ধ চাচা হাকিম হাওলাদারের ঘাড়ে আঘাত করে। এসময় লাঠির আঘাতে বৃদ্ধ সঞ্জা হারিয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়েন। প্রতিবেশী ও পরিবারের স্বজনরা আশংকাজনক অবস্থায় বৃদ্ধ হাকিমকে ট্রলারযোগে পিরোজপুর সদর হাসপাতালের জরুরী বিভাগে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক দুপুরে তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
পুলিশ অভিযোগ পেয়ে নিহত বৃদ্ধের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য জেলা মর্গে পাঠিয়েছে।

নিহত বৃদ্ধের ছেলে মো. নজরুল হাওলাদার অভিযোগ করেন, তার বাবা হাকিম হাওলাদার প্রতিপক্ষ মোজাহারের লাঠির পিটুনীর পর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার সময় পথে মারা যান। এ ঘটনায় নিহত বৃদ্ধের পরিবার থানায় মৌখিক অভিযোগ দায়ের করলে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে।

এ ব্যাপারে কাউখালী ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. মনিরুজ্জামান বিষয়টি নিশ্চিত করে ঘটনাস্থল থেকে বলেন, নিহত বৃদ্ধের ব্যাপারে সন্দেহ আছে বিধায় লাশের ময়না তদন্ত জন্য মর্গে প্রেরণ পাঠানোা হয়েছে। নিহতর পরিবারের পক্ষ হতে অভিযোগ দায়ের করলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

মন্তব্য নেই

মন্তব্য করুন