প্রতিকী ছবি

দেবদাস মুজুমদারঃ পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় আর্য্য নামে তিন বছরের একটি শিশু পানিতে ডুবে মারা গেছে।

গতকাল সোমবার দুপুর একটার দিকে মঠবাড়িয়া পৌর শহরের কাছিছিড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় সংলগ্ন পুকুরের পাড়ে খেলতে গিয়ে শিশুটি পুকুরে পড়ে গেলে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত শিশু আর্য্য ওই বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষিকা মনিকনা হালদার ছেলে। সে পার্শ্ববর্তী পাথরঘাটা উপজেলার পরীঘাটা গ্রামের গণপতি হালদারের ছেলে।স্থানীয়দের সূত্রে জানাগেছে, শিশু আর্য জন্মের পর মা মনিকনা ও বাবা গণপতির মধ্যে দাম্পত্য কলহ বাঁধলে উভয় আলাদাভাবে বসবাস করে আসছিল । শিশুটি শিক্ষকা মায়ের কাছে থাকত। প্রতিদিন মা মনিকনা শিশুটিকে তার কর্ম¯স্থল স্কুলে নিয়ে যেত। গতকাল সোমবার দুপুর একটার দিকে শিক্ষিকা মা শ্রেণী কক্ষে পাঠদান করছিলেন। এসময় শিশুটি স্কুলের পাশে পুকুর পাড়ে খেলছিল। এসময় শিশুটি সকলের অগোচরে পুরে পড়ে নিখোঁজ হয়। পরে পুকুরে ভাসমান অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে স্কুল কর্তৃপক্ষ উপজেলা স্বাস্থকমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক শিশুটিকে মৃত ঘোষণা করে। খবর পেয়ে নিহত শিশুটির বাবা গণপতি হাসপাতালে এসে শোকার্ত স্ত্রীকে মারধর করে। এসময় হাসপাতালে হৃদয় বিদারক পরিস্থিতির অবতারনা হয়। স্থানীয়রা পরিস্থিতি সামাল দেয়।এ ব্যাপারে মঠবাড়িয়া উপজেলা স্বাস্থ কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. মনিরুজ্জামান বলেন, বিষয়টি মর্মান্তিকত।শিশুটিকে হাসপাতালে নিয়ে আসার পথেই শিশুটির মৃত্যু ঘটেছে।এ বিষয়ে কাছিছিড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা রীতা রায় ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, শিশুটির মা রোজ ওকে কোলে নিয়ে স্কুলে এসে পাঠদান করত। এসময় শিশুটি স্কুলের ভেতরই খেলত। ছুটি শেষে মায়ের কোলে চড়ে বাড়ি ফিরত। শিশুটির এমন মৃত্যুতে আমরা মর্মাহত। তিনি আরও জানান, বিকালে হাসপাতাল হতে শিশুটির লাশ পরিবারের শোকার্ত স্বজনরা মা মনিকনা হালদারের বাবার বাড়ি মঠবাড়িয়ার নলী গ্রামে নিয়ে যায়। সেখানে মামা বাড়ির পারিবারিক সমাধিতে শিশুটিকে সমাহিত করা হয়।

SIMILAR ARTICLES

মন্তব্য নেই

মন্তব্য করুন