পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় এক মাদ্রাসা ছাত্রীকে ধর্ষণ ও এক কিশোরীকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে দুই বখাটের বিরুদ্ধে গতকাল বুধবার রাতে থানায় মামলা হয়েছে। এঘটনায় নিজামিয়া গ্রামের আঃ হক মোল্লার ছেলে ধর্ষক আল আমিন(২০) ও নলী চান্দুখালী গ্রামের ফারুক হাওলাদারের ছেলে তরিকুল ইসলাম(২১) নামের দুই লম্পটকে পুলিশ গ্রেফতার করেছে। ধর্ষিতাকে ডাক্তারী পরীক্ষায় জন্য আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয়ে পাঠানো হয়েছে।

মামলা সূত্রে জানাগেছে, উপজেলার দক্ষিণ বড়মাছুয়া গ্রামের দিন মজুরের মাদ্রাসা পড়ুয়া দশম শ্রেণীর ছাত্রীকে(১৬) বুধবার সন্ধ্যায় প্রতিবেশী নিজামিয়া ঘোপখালী গ্রামের বখাটে আল আমিন (২০) বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ঘরের পাশে বাগানে নিয়ে ধর্ষণ করে। এসময় ধর্ষকের মোবাইল ফোন বেজে উঠলে স্থানীয়রা এসে ধর্ষককে আটক করে।

অপরদিকে উপজেলা নলী চান্দুখালী গ্রামের পিতৃহীন এক কিশোরীকে (১৫) বুধবার রাতে ঘরের বারান্দায় ঢুকে জড়িয়ে ধরে প্রতিবেশী তরিকুল ইসলাম নামের এক বখাটে ধর্ষণের চেষ্টা চালায়। এসময় কিশোরীর মা এসে বখাটেকে হাতে-নাতে আটক করে।

দুই কিশোরীকে পাষবিক নির্যাতনের ঘটনায় তাদের মা বাদী হয়ে থানায় দুই বখাটেকে আসামী করে পৃথক দু’টি মামলা দায়ের করলে পুলিশ দুই বখাটেকে গতকাল বুধবার রাতে গ্রেফতার করে আজ বৃহস্পতিবার আদালতে সোপর্দ করেছে।

মঠবাড়িয়া থানার অফিসার ইনচার্জ খন্দকার মোস্তাফিজুর রহমান জানান, দুই কিশোরীকে পাষবিক নির্যাতনের ঘটনায় দুই বখাটেকে গ্রেফতার করে বৃহস্পতিবার আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

SIMILAR ARTICLES

মন্তব্য নেই

মন্তব্য করুন