দেবদাস মজুমদার 🔶

আমাদের প্রাণ-প্রকৃতি বিচিত্র উদ্ভিদরাজিতে সমৃদ্ধ। কিছু উদ্ভিদ চাষকৃত আবার কিছু উদ্ভিদ অচাষকৃত। প্রকৃতিগতভাবে জন্মে থাকা অনেক উদ্ভিদ আমাদের যেমন খাদ্য দেয় আবার তা নানা ঔষধিগুণেও ভরা। ঔষধি উৃদ্ভিদগুলো মানবদেহের নানা রোগের উপশম করে। ফলে উদ্ভিদ আমাদের জীবন ধারনে অতি দরকারী প্রাণ।
ওলটকম্বল এক ঔষধি প্রাণের নাম। ওলটকম্বলের মেরুণ রঙের ফুলে যে কেউ বিমোহিত হবেন। অনেকে ঔষধি ওলট কম্বলের দুই একটি চারা লাগিয়ে থাকেন শখ করে। তবে এর পরিকল্পিত আবাদ নেই। পথেঘাটে তেমন দেখা না মিললেও পিরোজপুরের ভান্ডারিয়া পৌর শহরের ঐতিহ্যবাহী খান বাড়ির পারিবারিক কবরস্থানে তিনটি গাছে ফুটেছে সুনন্দ ওলট কম্বল ফুল। কিছু ফুল ঝড়ে গেছে। এখানে গাছে পরিপক্ক ফলও শোভাবর্ণ করেছে। কানের দুলের সদৃশ উজ্জল মেরুণ রঙের ফুল কবরস্থানের প্রকৃতি ও পরিবেশকে মোহনীয় করে তুলেছে।

ওলটকম্বলের বৈজ্ঞানিক নাম Abroma augusta, প্রচলিত নাম ওলটকম্বল, ইউনানী নাম ওলট কম্বল,
আয়ুর্বেদিক নাম ঔলট কম্বল, ইংরেজি নামঃ Devil’s Cotton আর বৈজ্ঞানিক নাম Abroma augusta Linn.
Sterculiaceae পরিবার গোত্রের ওলটকম্বল প্রায় ২ মিটার উচ্চতার বৃক্ষ বিশেষ। পাতার উপর পৃষ্ঠ রোঁয়া বিশিষ্ট। এর ডাঁটা ও ছাল পানিতে কচলালে বিজল সৃষ্টি হয়। ফুল মেরুণ বর্ণের। ফল প্রথমে সবুজ, পাকলে কালো দেখায়। ফলের ভিতর অসংখ্য রোঁয়া ও কালো জিরার মত বীজ সুপ্ত থাকে। পাতায় ও শাখার ছালে স্টেরল ও অন্যান্য গ্লাইকোসাইড এবং মূলের ছালে অ্যালকোহল, স্টেরল, গঁদ ও ম্যাগনেসিয়াম লবণ বিদ্যমান।

বাংলাদেশের আনাচে কানাচে পথের ধারে ওলটকম্বল কদাচিত দেখা মেলে। তবে চট্রগ্রাম, সিলেট ও ময়মনসিংহের বনাঞ্চলে এমনিতেও জন্মাতে দেখা যায়।
পাতার ডাঁটা, মূলের ছাল, ক্ষেত্র বিশেষে সমগ্র উদ্ভিদ ঔষধি গুণে ভরা।যা রজঃকৃচ্ছতা, প্রসাবে জ্বালা-যন্ত্রনা, প্রদর, বিলম্বে ঋতুদর্শন, জরায়ুর স্থানচ্যুতি ও প্রমেহ উপশমে ব্যবহৃত হয়।

জুলাই-আগষ্ট মাসে বীজ সংগ্রহ করে কিছুটা রোদে শুকিয়ে এক থেকে দুই মাসের মধ্যে বীজতলায় লাগাতে হয়। ছায়া সহ্য করতে পারে বিধায় অন্য গাছের নিচে সহজেই উলটকম্বল চাষ করা যায়। বেলে-দোআঁশ মাটি চাষের জন্য উপযুক্ত। মাটি, গোবর ও ভিজা কাঠের ভুষি ২: ১: ১ অনুপাতে মিশিয়ে বীজতলা তৈরি করতে হয়। বপনের আগে বীজ দু’ঘন্টা পানিতে ভিজিয়ে নিলে বেশী পরিমাণে বীজ অঙ্কুরিত হয়।
আমাদের প্রাণ প্রকৃতি থেকে প্রায় বিলুপ্ত ওলটকম্বল। তবে এর পরিকল্পিত আবাদ প্রয়োজন।

SIMILAR ARTICLES

মন্তব্য নেই

মন্তব্য করুন