মঠবাড়িয়া প্রতিনিধি >>

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া থানা পুলিশ ও গ্রামবাসি মিলে দেশীয় আগ্নেয়াস্ত্র সহ রিপন কাজী (৪২) নামে এক দুর্ধর্ষ ডাকাতকে গ্রেপ্তার করেছে। আজ রবিবার সকালে উপজেলার গুলিশাখালী গ্রামের সড়কে পুলিশ ও গ্রামবাসী মিলে ধওয়া করে ঐ ডাকাতকে আটক করে। এসময় তার সঙ্গে বহনকৃত একটি দেশীয় এলএমজি বন্দুক, ৫টি কার্তুজ, টর্চলাইট, মোবাইল ফোনসেট ও চার্জার উদ্ধার করে।
পুলিশ জানায় গ্রেপ্তারকৃত ডাকাত রিপন আন্ত:জেলা ডাকাত দলের সদস্য । সে উপজেলার গুলিশাখালী ইউনিয়নের লক্ষনা গ্রামের মতিউর রহমান কাজীর ছেলে।

থানা সূত্রে জানাগেছে. আজ রবিবার সকাল ছয়টার দিকে উপজেলার লক্ষনা গ্রামের সড়ক দিয়ে ডাকাত রিপন সশস্ত্র অবস্থায় গুলিশাখালীর দিকে যাচ্ছিল। এ সময় গ্রামবাসী দেখতে পেয়ে থানা পুলিশে খবর দেয়। পুলিশ ঘটনা স্থলে গেলে ডাকাত রিপন দৌড়ে পালানোর চেষ্টা করলে পুলিশ ও গ্রামবাসী মিলে ধাওয়া করে স্থানীয় জুয়েল মেম্বরের বাড়ীর সামনের রাস্তা থেকে তাকে আটক করে।

মঠবাড়িয়া থানার অফিসার ইন-চার্জ কে.এম. তারিকুল ইসলাম জানান, গ্রেপ্তারকৃত ডাকাত রিপন আন্ত:জেলা ডাকাত দলের সদস্য। তার বিরুদ্ধে উপকূলীয় মঠবাড়িয়াসহ বিভিন্ন থানায় একাধিক ডাকাতি মামলা ও দস্যুতার অভিযোগ রয়েছে। এ ঘটনায় মঠবাড়িয়া থানার উপ পরিদর্শক মো. মাহফুজ বাদি হয়ে আজ রবিবার মঠবাড়িয়া থানায় অস্ত্র আইনে একটি মামলা দায়ের করেছেন। তাকে আদালতের মাধ্যেমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।

SIMILAR ARTICLES

মন্তব্য নেই

মন্তব্য করুন