মঠবাড়িয়া প্রতিনিধি >

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া থানা’ পুলিশ শারমিন আক্তার (১৩) নামে এক মাদ্রাসা ছাত্রীর লাশ উদ্ধার করেছে । পুলিশ আজ সোমবার দুপুরে নিহত মাদ্রাসা ছাত্রীর লাশ উপজেলার  উত্তর মিঠাখালী গ্রাম থেকে উদ্ধার করেছে। নিহত মাদ্রসা ছাত্রীর পরিবারের দাবি বাবার সাথে অভিমান করে  সোমবার সকালে ঘরের আড়ার সাথে ফাঁসলাগিয়ে সে আত্মহত্যা করেছে।

নিহত শারমিন উপজেলার উত্তর মিঠাখালী গ্রামের গার্মেন্টস শ্রমিক বাদশা ফরাজীর মেয়ে ও স্থানীয় হাফেজ মোল্লা নেছারিয়া দাখিল মাদ্রাসার অষ্টম শ্রেনীর ছাত্রী।
থানা ও পারিবারিক সূত্রে জানাগেছে, উত্তর মিঠাখালী গ্রামের গার্মেন্টস শ্রমিক বাদশা ফরাজী প্রথম স্ত্রী (ওই ছাত্রীর মা)  মারা যাওয়ার পর সে দ্বিতীয় বিয়ে করে স্ত্রী নিয়ে চট্টগ্রাম বসবাস করে। গ্রামের বাড়িতে মেয়েটি নানীর সাথে বসবাস করত। সোমবার সকালে একাকি ঘরে শারমিন সাড়ে ১০টার দিকে ঘরের আড়ার সাথে ওড়না দিয়ে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে। খবর পেয়ে থানা পুলিশ ওই বাড়ি থেকে শারমিনের মরদেহ উদ্ধার করেছে।

মঠবাড়িয়া থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মাজহারুল আমীন জানান, মাদ্রাসা ছাত্রীর আত্মহত্যার পর ঘটনাস্থল থেকে একটি নোট উদ্ধার করা হয়েছে। নোটের বক্তব্য অনুযায়ী ধারনা করা হচ্ছে বাবার সাথে অভিমান করে শারমিন আত্মহত্যা করেছে। ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ আগামী মঙ্গলবার সকালে জেলা মর্গে প্রেরণ করা হবে।

মন্তব্য নেই

মন্তব্য করুন