মঠবাড়িয়া প্রতিনিধি >

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া পৌর শহরের কে.এম লতিফ ইনস্টিটিউশনের এসএসসি পরীক্ষার্থী রোশনী আক্তার (১৫) অপহরণের ১৮দিন পার হলেও তাকে পুলিশ উদ্ধার করতে পারেনি। গত ২৪ সেপ্টেম্বর ওই স্কুল ছাত্রী প্রাইভেট পড়ে বাসায় ফেরার পথে চার বখাটে মিলে মেয়েটিকে অপহরণ করে ।

এ ঘটনায় ভূক্তভোগি মেয়েটির নানা আবদুস সালম মৃধা বাদি হয়ে ছয়জনকে অভিযুক্ত করে মঠবাড়িয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করলেও ওই স্কুল ছাত্রীর সন্ধান মেলেনি।
মামলা সূত্রে জানা যায়, উপজেলার সবুজ নগর গ্রামের সৌদি প্রবাসী আবদুর রবের কন্যা স্কুলছাত্রী রোশনী আক্তার গত ২৪ সেপ্টেম্বর সকালে প্রাইভেট পরে বাসায় ফেরার পথে রাস্তা থেকে বাদুরতলা গ্রামের সুলতান হাওলাদারের বখাটে ছেলে সুমন হাওলাদার (২২) তার অপর তিন সহযোগী বেল্লাল গাজী, সোহেল হাওলাদার ও মাহাবুব হাওলাদার অপহরণ করে মোটরসাইকেলে তুলে নিয়ে যায়। এ ঘটনা পুলিশকে অবহিত করলে অপহরণকারীদের মূল হোতা সুমনের ভাই সোহেল হাওলাদারকে আটক করে। পরে অভিযুক্ত বখাটে সুমনের দুই আত্মীয় আলমগীর ও মাহাবুব অপহৃতকে উদ্ধার করে দিবে এ মর্মে অঙ্গীকারনামা দিয়ে থানা থেকে সোহেলকে মুক্ত করে নিয়ে যায়। তবে গত ১৮ দিনেও ওই স্কুল ছাত্রীকে পুলিশ উদ্ধার করতে পারেনি।

এ ব্যাপারে মঠবাড়িয়া থানার অফিসার ইনচার্জ খন্দকার মোস্তাফিজুর রহমান জানায়, অপহৃত ওই স্কুল ছাত্রী উদ্ধারে পুলিশ চেষ্টা চালাচ্ছে।

SIMILAR ARTICLES

মন্তব্য নেই

মন্তব্য করুন