মঠবাড়িয়া প্রতিনিধি <>

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় ছেলের মারধরে আম্বিয়া বেগম(৭০) নামে এক বৃদ্ধা মা হাসপাতালে চিকিৎাসিধ অবস্থায় মৃত্যু ঘটেছে। আজ শনিবার বিকাল সাড়ে চারটার দিকে হাসপাতালে চিকিৎসাধিন অবস্থায় আহত বৃদ্ধা আম্বিয়ার মৃত্যু ঘটে। পুলিশ খবর পেয়ে সন্ধ্যায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স হতে ওই বৃদ্ধার লাশ উদ্ধার করে।
নিহত বৃদ্ধা আম্বিয়া উপজেলার তুষখালী ইউনিয়নের জানখালী গ্রামের হেমায়েত তালুকদারের স্ত্রী। সে পাঁচ সন্তানের জননী।
এ ঘটনার পর থেকে ওই বৃদ্ধার অভিযুক্ত বড় ছেলে জলিল তালুকদার থেকে পলাতক ।

পুলিশ জানায়, আজ শনিবার সকালে বৃদ্ধা মা আম্বিয়া বেগম তার স্বামী হেমায়েত তালুকদার ও ছোট ছেলে শহীদ তালুকদার মিলে সুপারী বাগান থেকে সুপারী পাড়ছিলেন। এসময় পৃথক সংসারে থাকা বড় ছেলে জলিল তালুকদার সুপারী পড়াতে বাঁধা দেন। এ নিয়ে পরিবারে উভয় পক্ষে ঝগড়া বাঁধে । এক পর্যায় ছেলে জলিল ক্ষিপ্ত হয়ে বৃদ্ধা বাবাকে মারধর শুরু করলে মা আম্বিয়া বাঁধা দেন।
এক পর্যায় বড় ছেলে জলিল , তার স্ত্রী মাহমুদা বেগম, দুই ছেলে ও সোবাহান মিলে বৃদ্ধা আম্বিয়া বেগমকে মারধর করে। এতে সে জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন। পরে পরিবারের প্রতিবেশী ও স্বজনরা অসুস্থ বৃদ্ধাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। সেখানে চিকিৎসাধিন অবস্থায় বিকাল সাড়ে চারটার দিকে বৃদ্ধা মা মারা যান। পুলিশ খবর পেয়ে হাসপাতাল হতে নিহত বৃদ্ধার লাশ উদ্ধার করেন।
এ ঘটনার পর অভিযুক্ত ছেলে জলিল তালুকাদার ও তার পরিবারের সদস্যরা পালিয়ে যান।

মঠবাড়িয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মো. মাসুদুজ্জামান ঘটনা নিশ্চিত করে জানান, হাসপাতাল হতে ওই বৃদ্ধার লাশ উদ্ধার করা । এ ঘটনায় নিহত পরিবারের পক্ষ হতে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

SIMILAR ARTICLES

মন্তব্য নেই

মন্তব্য করুন