পিরোজপুর প্রতিনিধি  <>
পিরোজপুর সদর উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) রামানন্দ পালের স্ত্রী অদিতি বড়ালের পেটে রহস্যজনক ছুরিকাঘাতের ঘটনা ঘটেছে। তবে অদিতি বড়ালের অভিযোগ বিগত আক্রমনের ন্যায় এক যুবক তার বাসায় প্রবেশ করে তার পেটে ছুরি দিয়ে আঘাত করে। আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে পিরোজপুরের জেলা প্রশাসনের ডরমেটরি ভবনে সহকারী কমিশনার (ভূমি) রামনন্দ পালের বাসায় এ ঘটনা ঘটে বলে জানান পিরোজপুরের পুলিশ সুপার হায়াতুল ইসলাম খান।
অদিতি বড়াল (২৭) বাগেরহাটের চিতলমারী উপজেলার সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান কালিদাস বড়াল ও বাগেরহাটের সাবেক মহিলা সংসদ সদস্য হ্যাপি বড়ালের কন্যা।
এর আগে রামানন্দ পাল বেতাগী উপজেলার সহকারি কমিশনার (ভূমি) হিসেবে থাকাকালে ২০১৮ সালের ৩ জুলাই তাকে আরো একবার ছুরিকাঘাত করা হয় এবং পিরোজপুরের একই বাসায় থাকাকালীন সময়ে ২০১৮ সালের ৮ জুলাই রাতে একই ভাবে তার পেটে ছুরিকাঘাতের ঘটনা ঘটে।
কিন্তু হামলার বিষয়ে সাংবাদিকদের সাথে কোন কথা বলতে রাজি হয়নি সহকারী কমিশনার (ভূমি) রামানন্দ পাল অথবা তার স্ত্রী অদিতি বড়াল। প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে অদিতি বড়াল কে বাসায় নিয়ে যান সহকারী কমিশনার (ভূমি) রামানন্দ পাল।
পিরোজপুর জেলা হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. শাকিল সরোয়ার বলেন, অদিতি বড়ালের পেটের নিচের দিকে আঘাত করা হয়েছে। তিনি এখন শঙ্কামুক্ত অবস্থায় চিকিৎসাধীন আছেন।
ঘটনার বিষয়ে পিরোজপুরের পুলিশ সুপার হায়াতুল ইসলাম খান জানান, এর আগেও তার উপর একাধীক বার হামলার ঘটনা ঘটেছে। তাই বিষয়টি পুলিশ গুরুত্বের সাথে তদন্ত করে দেখছে। এ বিষয়ে অভিযোগের ভিত্তিতে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।
এদিকে সহকারী কমিশনার (ভূমি) রামানন্দ পালের স্ত্রী অদিতি বড়ালের পেটে আঘাত নিয়ে সন্দেহ করেছে অনেকে। তার পেটের ছুরির আঘাতকে অনেকে বলছেন এটা আত্মহত্যার চেষ্টা নয়তো ।

SIMILAR ARTICLES

মন্তব্য নেই

মন্তব্য করুন