মঠবাড়িয়া প্রতিনিধি 🔹

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় শামীম মাহমুদ হাওলাদার (৪০) নামে এক যুবলীগ নেতাকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে গুরুতর জখম করেছে প্রতিপক্ষ ছাত্রলীগ নেতা। গতকাল রবিবার সন্ধ্যায় উপজেলার ভগিরথপুর বাজারে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে এ হামলার ঘটনা ঘটে। পরে স্থানীয়রা আহত যুবলীগ নেতা শামীমকে উদ্ধার করে বরিশাল শেরে বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে। শামীম উপজেলা যুবলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি ও ছোট শৌলা গ্রামের আবদুল মন্নান মাষ্টার হাওলাদারের ছেলে।

স্থানীয়দের সূত্রে জানা গেছে, মঠবাড়িয়ার ভগিরথপুর গ্রাম্য বাজারে একটি ভিটার জমি দখল নিয়ে শামীম মাহমুদ ও লাভলু তালুকদারের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল। কয়েক মাস পূর্বে ওই জমির দখল নিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘষের ঘটনা ঘটে। এ সময় লাভলু তালুকদারকে কুপিয়ে গুরুতর যখম প্রতিপক্ষ যবলীগ নেতা শামীম ও তার দলবল। ওই ঘটনার জের ধরে স্থানীয় ভরিথপুর বাজারে আওয়ামী লীগ নেতা আবদুস ছত্তার মেম্বারের অফিস কার্যালয়ে যুবলীগ নেতা শামীম মাহমুদ অবস্থান করলে সাবেক ছাত্রলীগ নেতা লাভলু তালুকদার দলবল নিয়ে ধারালো অস্ত্র নিয়ে তার ওপর হামলা চালায়। এ সময় তারা শামীমের সারা শরীরে ধারালো অস্ত্র দিয়ে ১৮টি কোপ দিয়ে গুরুতর জখম করে পালিয়ে যায়।

এ ব্যাপারে মঠবাড়িয়া থানার অফিসার ইনচার্জ ( তদন্ত) মোহাম্মদ মাজহারুল আমীন জানান, হামলার ঘটনা মৌখিকভাবে অবহিত হয়েছি। লিখিত অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

SIMILAR ARTICLES

মন্তব্য নেই

মন্তব্য করুন