SONY DSC

মঠবাড়িয়া প্রতিনিধি <>

পিরোজপুর মঠবাড়িয়া উপজেলা সমাজ সেবা কর্মকর্তা মো. আখলাকুর রহমানের ওপর নিজ অফিস কক্ষে সন্ত্রাসী হামলার বিচার দাবিতে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। আজ সোমবার সকালে উপজেলা পরিষদের সরকারী কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের উদ্যোগে উপজেলা পরিষদ সম্মুখ সড়কে ঘন্টাব্যাপী এ মানববন্ধনে সরকারী কর্মকর্তা, রাজনৈতিক নেতাসহ এলাকাবাসি অংশ নেন।
শেষে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মোহাম্মদ মনিরুজ্জামানের সভপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য দেন, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আজিজুল হক সেলিম মাতুব্বর, আওয়ামীলীগ নেতা মুক্তিযোদ্ধা ফারুক-উজ্জামান, আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি আরিফ-উল-হক,আওয়ামীলীগ নেতা ফজলুল হক মনি,উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক জুলহাস শাহীন প্রমুখ।
সমাবেশে বক্তারা অভিযুক্ত সন্ত্রাসীদের দৃষ্টান্তমূলক বিচারের দাবি জানান।

উল্লেখ্য, রোবাবার বিকালে উপজেলা হাজী গুলশান আরা শিশু সদন ও এতিম খানায় ১০১ জন ভূয়া এতিমের নামে সরকারী অর্থের বিল দিতে অস্বীকৃতি জানালে এতিম খানার সভাপতি ও তার ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসীরা মিলে উপজেলা সমাজ সেবা কর্মকর্তা মো. আখলাকুর রহমানকে তার নিজ অফিস কক্ষে পিটিয়ে গুরুতর জখম করে। এসময় হামলাকারীরা তার অফিস কক্ষ ভাংচুর চালায়।

এ হামলার ঘটনায় আহত সমাজসেবা কর্মকর্তা মো. আখলাকুর রহমান বাদি হয়ে এতিমখানার সভাপতি ও শিক্ষকসহ পাঁচজনের বিরুদ্ধে রোববার রাতে মঠবাড়িয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। পুলিশ এ হামলায় জড়িত দাউদখালী ইউনিয়নের বড়হারজী গ্রামের হাজী গুলশান আরা শিশু সদন এর সভাপতি মো. আবদুল গফ্ফার (৬০) ও এতিম খানার শিক্ষক মাওলানা মোস্তফা মাহামুদ (৫০) কে ঘটনাস্থল হতে গ্রেফতার করে।

মঠবাড়িয়া থানার ইন্সেপেক্টর (তদন্ত) মাজহারুল আমিন (বিপিএম) অভিযুক্ত দুই জনকে গ্রেফতার কওে আজ সোমবার আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। অপর আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

মঠবাড়িয়া উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) মো. সোহাগ হাওলাদার জানান, উপজেলা পরিষদের একজন সরকারী কর্মকর্তার দপ্তরে ঢুকে হত্যার উদ্দেশ্যে এভাবে মারধর ও ভাংচুরের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করছি। বিষয়টি উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা হয়েছে।

ছবি > জামান আবীর

SIMILAR ARTICLES

মন্তব্য নেই

মন্তব্য করুন