মঠবাড়িয়া প্রতিনিধি >>

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় চাঞ্চল্যকর সাবেক ইউপি সদস্য আবদুল লতিফ হাওলাদার হত্যা মামলার বাদী ও তার পরিবারকে প্রাণনাশের হুমকি দেয়ার অভিযোগে মামলার অন্যতম আসামী আবদুল করিম হাওলাদারের ছয় মেয়েকে আদালত জেল হাজতে পাঠিয়েছে। বুধবার বিকালে পুলিশ ওই ছয় বোনকে গ্রেফতার করে আজ বৃহস্পতিবার আদালতে সোপর্দ করলে আদালত তাদেও জেল হাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন। গ্রেফতারকৃতরা হলো রানী বেগম(৪৫), রীনা বেগম(৪০), লাভলী বেগম(৩৫), লীয়া বেগম(৩০), মাকসুদা বেগম(২৫) ও রেশমা বেগম(২২)।

থানা ও আদালত সূত্রে জানাগেছে , উপজেলার সবুজনগর গ্রামের চাঞ্চল্যকার ইউপি সদস্য লতিফ হত্যা মামলার ছয় নম্বর পলাতক আসামী আ. করীমের ছয় মেয়ে বুধবার বিকেলে সংঘবদ্ধ হয়ে মামলার বাদী ও পরিবারের উপর লাঠি-সোটা নিয়ে হামলার চেষ্টা চালায়। এসময় বাদী পক্ষ থানায় খবর দিলে ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ আবদুল করিমের ছয় মেয়েকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়। পরে থানা পুলিশ আটককৃত ৬ বোনকে আজ বৃহস্পতিবার ১৫১ ধারায় গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতে সোপর্দ করে।

উল্লেখ্য. গত ১৫ এপ্রিল জমি সংক্রান্ত একটি মামলায় হাজিরা দিতে পিরোজপুর জেলা সদরে যাবার পথে তুলাতলা নামক স্থানে আবদুল লতীফকে কুিপয়ে হত্যা করে প্রতিপক্ষরা। এঘটনায় গত ১৭ এপ্রিল নিহত লতীফের ছেলে মো. মাহাবুব হওলাদার সুজন বাদী হয়ে ১৫ জনকে আসামী করে থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। ওই মামলায় ১ আসামী বর্তমানে জেল হাজতে রয়েছে।

SIMILAR ARTICLES

মন্তব্য নেই

মন্তব্য করুন