মঠবাড়িয়া প্রতিনিধি >>

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া তুষখালী ইউনিয়ন বিএনপি নেতা হাবিব তালুকদার হত্যা মামলার আসামি ইউপি সদস্য ইদ্রিস তালুকদারকে পিটিয়ে দুই পা ও একহাত ভেঙে দিয়েছে প্রতিপক্ষের লোকজন। পূর্ব বিরোধের জের ধরে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় উপজেলার তুষখালী লঞ্চঘাট এলাকায় ওই ইউপি সদস্য  এ হামলার শিকার হন। তিনি বর্তমানে খুলনা মেডিকেলে চিকিৎসাধিন রয়েছেন ।
থানা ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, আহত ইউপি সদস্যিইদ্রস তালুকদার  মঙ্গলবার সন্ধ্যায় সাফা ইউনিয়র পরিষদ থেকে মোটরসাইকেল যোগে বাড়ি ফিরছিলেন। এসময় পথে বুড়িরচর গ্রামের তুষখালী লঞ্চঘাট স্ট্যান্ডে আগে থেকে ওঁৎ পেতে থাকা প্রতিপক্ষের লোকজন তার পথরোধ করে।  এসময় তাকে হাতুরি  দিয়ে পিটিয়ে গুরুতর জখম করে। হামলাকারীরা  তার হাত-পা ভেঙে  গুরুতর আহত করে ফেলে রেখে পালিয়ে যায়। স্থানীয়রা তাকে গুরুতর অবস্থায় উদ্ধার করে পিরোজপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করার পর তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য খুলনা মেডিকেলে স্থানান্তর করা হয়।
ধানীসাফা ইউপি চেয়ারম্যান হারুন তালুকদার অভিযোগ করেন,  স্থানীয় শাহীন তালুকদার, স্বপন তালুকদার, খলিল মোল্লা, শাহ আলম তালুকদারের নেতৃত্বে ২৫-৩০ জনের একটি দুর্বৃত্তদল ইদ্রিস তালুকদারের মটরসাইকেলের গতিরোধ করে এ হামলা চালায়।

মঠবাড়িয়া থানার ওসি কে এম তারিকুল ইসলাম জানান,  হামলার খবর পেয়ে ঘটনাস্থল হতে পুলিশ আহত ইউপি সদস্যকে  উদ্ধার করে। এঘটনায় লিখিত অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে ।

প্রসঙ্গত, উপজেলার বুড়িরচর গ্রামের আলোচিত হাবিব তালুকদার হত্যা মামলার এজাহারভুক্ত ২নং আসামি স্থানীয় ইউপি সদস্য ইদ্রিস তালুকদার উচ্চ আদালতে জামিনের পর বর্তমানে নিম্ম আদালত থেকেও জামিনে রয়েছেন।

মন্তব্য নেই

মন্তব্য করুন