পিরোজপুর প্রতিনিধি  >>
পিরোজপুরের স্বরূপকাঠি উপজেলা বন কর্মকর্তাকে মারধরের ঘটনায় স্বরূপকাঠী পৌর মেয়র সহ চার ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও এক সাংবাদিকের বিরুদ্ধে পিরোজপুর আদালতে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

আজ সোমবার পিরোজপুর জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো: সাইফুজ্জামানের আদালতে মামলা দায়ের করেন নেছারবাদ উপজেলা বন কর্মকর্তা মো: সাজ্জাদ হোসেন।   আদালতের বিচারক মো: সাইফুজ্জামান মামলাটি গ্রহণ করে নেছারবাদ থানার ওসি কে এজাহার হিসেবে নথিভূক্ত করার আদেশ দেন।

মামলায় অভিযুক্তরা হলন, পিরোজপুরের স্বরূপকাঠী  পৌর মেয়র গোলাম মো: কবির, নেছারবাদ উপজেলার সোহাগদল ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুর রশিদ মিয়া, আটঘর কুড়িয়ান ইউপি চেয়ারম্যান শেখর শিকদার, সমুদয়কাঠী ইউপি চেয়ারম্যান মো: মাহমুদ করিম সবুর তালুকদার, সুটিয়াকাঠী ইউপি চেয়ারম্যান মো: গাউস তালুকদার ও স্থানীয় সাংবাদিক মো: কাওসার তালুকদার।
মামলাসূত্রে জানাযায়, গত ৬ এপ্রিল স্বরূপকাঠি উপজেলার  কৌড়িখারা খালের মধ্যে থেকে  সুন্দরী,  গেওয়াসহ নানা প্রজাতির গাছ ভর্তি একটি নৌকা আটক করে উপজেলা বন বিভাগ। এ ঘটনায়  দু জনকে আসামী করে মামলা দায়ের করে উপজেলা বন কর্মকর্তা মোঃ সাজ্জাদ হোসেন। এই মামলার কারণে গোলপাতা ও গাছ আটকের মামলা তুলে নেবার জন্য তাকে নানা চাপ দিতে থাকে স্থানীয় প্রভাবশালীরা।
এরপর গত ০৪ মে বৃহস্পতিবার বিকেলে উপজেলা বন কর্মকর্তা সাজ্জাদ হোসেন কে স্বরূপকাঠি পৌর মেয়র জি এম কবির ফোন করে কার্যালয়ে যেতে বলে। সেখানে গেলে মেয়র সহ উল্লেখিত আসামীরা তাকে আটক করা অবৈধ গাছসহ নৌকা ছেড়ে দিতে ও মামলা তুলে নিতে বলে। এতি তিনি রাজি না হলে সেখানে উপস্থিত আসামীরা গালাগালি করে এরপর শুরু করে মারধর। এ সময় পৌর মেয়র গোলাম মো: কবির তাকে গালি গালাজ  করে ও নানা হুমকি দেয়। এক পর্যায়ে তার মাথায় অস্ত্র ঠেকিয়ে একটি সাদা কাগজে স্বাক্ষর নেয়।

 

SIMILAR ARTICLES

মন্তব্য নেই

মন্তব্য করুন