মঠবাড়িয়া প্রতিনিধি >>

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় সৌদি প্রবাসি এক গৃহস্থের বসতঘরে অজ্ঞাত দুর্বৃত্তরা রাতের আঁধারে আগুন লাগিয়ে পুড়িয়ে দিয়েছে। বৃহস্পতিবার দিবাগত গভীর রাতে উপজেলার সাপলেজা ইউনিয়নের নলী চান্দখালী গ্রামের সৌদি প্রবাসি মো. ইসমাইল জোমাদ্দারের বসতঘরটি অজ্ঞাত দুর্বৃত্তরা পূর্ব শত্রুতার জের ধরে আগুন লাগিয়ে পুড়িয়ে দেয়। আগুনে ওই প্রবাসির বসতঘর সহ সম্পূর্ণ মালামাল পুড়ে ছাই হয়। ঘটনার রাতে বসতঘরটি তালাবদ্ধ থাকার সুযোগে অজ্ঞাত দুর্বৃত্তরা নির্বঘ্নে পরিকল্পিতভাবে আগুন লাগিয়ে পুড়িয়ে দেয় দেয় বলে ক্ষতিগ্রস্ত প্রবাসির স্ত্রী রুমা বেগম অভিযোগ করেন। অগ্নিকান্ডে ওই পরিবারের ১০/১২ লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারটি দাবি করেছেন।

স্থানীয়দের সূত্রে জানাগেছে, নলী চান্দখালী গ্রামের সৌদি প্রবাসি মো. ইসমাইল জোমাদ্দার সৌদি আরবে চাকুরীরত আছেন। এদিকে তাঁর স্ত্রী রুমা বেগম দুই সন্তান নিয়ে বাড়িতে বসবাস করে আসছিলেন। বৃহস্পতিবার বিকালে রুমা বেগম দুই সন্তান নিয়ে একই গ্রামের বাবার বাড়িতে বেড়াতে যান। এসময় বসতঘরটি সে তালাবদ্ধ করে রেখে যান। রাত আনুমানিক সাড়ে এগারটার দিকে কে বা কারা ওই বসত ঘরে পরিকল্পিতভাবে আগুন লাগিয়ে সটকে পড়ে। অগ্নিকান্ডে পর প্রতিবেশীরা ছুটে এসে আগুন নেভানোর চেষ্টা চালিয়ে ব্যর্থ হয়। এসময় মঠবাড়িয়া ফায়ার সার্ভিসে খবর দিলে অগ্নি নির্বাপক দল ঘটনস্থলে ছুটে গেলেও গ্রামের একটি সেতু ভাঙা থাকার কারনে ফায়ার সার্ভিসের গাড়ি ঘটনাস্থলে পৌঁছতে ব্যর্থ হয়। পরে ফায়ার সার্ভিসের একটি দল পায়ে হেঁটে ঘটনাস্থলে পৌঁছানোর আগেই পুরো বসত বাড়িটি মালামালসহ পুড়ে ভস্মিভূত হয়।
সাপলেজা ইউপি চেয়ারম্যান মো. মিরাজ মিয়া বলেন, ওই প্রবাসির বসতঘরটি ঘটনার রাতে তালাবদ্ধ থাকার সুযোগে কে বা কারা পূর্ব পরিকল্পিতভাবে এ ঘটনা ঘটিয়েছে। বিষয়টি খুব দু:খজনক। আগুনে পরিবারটি গৃহহীন হয়ে পড়েছে।

এ বিষয়ে মঠবাড়িয়া থানার অফিসার ইনচার্জ(তদন্ত) মো. মাজহারুল আমীন (বিপিএম) বলেন, এ ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্ত প্রবাসির স্ত্রী রুমা বেগম বাদি হয়ে মঠবাড়িয়া থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। এ ব্যাপারে তদন্তপূর্বক আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

SIMILAR ARTICLES

মন্তব্য নেই

মন্তব্য করুন